চৌহালীর রেহাইপুকুরিয়া কাঠের পুল ১০ বছরেও সংষ্কার হয়নি

সংযোগ সড়কে মাটি নেই : ৪ গ্রামের ১০ হাজার মানুষের যাতায়াতে দুর্ভোগ
রফিক মোল্লা, চৌহালী (সিরাজগঞ্জ)

সিরাজগঞ্জের চৌহালী উপজেলার বাঘুটিয়া ইউনিয়নের রেহাইপুকুরিয়া বাজারের পূর্বপাশের খালের উপর নির্মিত কাঠের পুলটি এলাকাবাসীর কোনো কাজেই আসছে না। সেতুটি নির্মানের ১০ বছরেও এর দু’পাশের সংযোগ সড়কে মাটি ভরাট করা হয়নি। এখন সংস্কারের অভাবে সেতুটির পাটাতনের কাঠ ও বাঁশ পচে নষ্ট হয়ে একাই খসে খসে পড়ছে। এ ছাড়া খুঁটিগুলোও নড়বড়ে হয়ে সেতুটি চরম ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠেছে। যে কোনো মুহূর্তে তা ভেঙ্গে পড়ে প্রাণহানীর আশংকা দেখা দিয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, বাঘুটিয়া ইউনিয়নের রেহাইপুকুরিয়া, চর নাকালিয়া, মেটুয়ানি ও দেওয়ানগঞ্জ এ ৪টি গ্রামের ১০ হাজার মানুষের যাতায়াতের দুর্ভোগ লাঘবে ২০০৯ সালে এলজিএসপি-১ এর আওতায় প্রায় ৫ লাখ টাকা ব্যয়ে এ কাঠের পুলটি নির্মাণ করা হয়। কিন্তু সেতুটি নির্মাণের পর থেকেই এর দু’পাশের সংযোগ সড়কে মাটি ভরাট না করায় সেতুটি জনসাধারণের যাতায়াতে কোনো কাজেই আসে না।

শুধু বর্ষা মৌসুমে খাল পাড়াপাড়ে সেতুটি ব্যবহার হয়ে আসছিল। কিন্তু গত কয়েক বছরেও সেতুটির কোন সংস্কার কাজ না করায় এখন এর পাটাতনের কাঠ ও খুটির বাঁশ খসে খসে পড়ছে। ফলে সেতুটি দিয়ে যাতায়াত চরম ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠেছে। ফলে প্রাণহানীর আশংকায় এলাকাবাসী সেতুর উপর দিয়ে যাতায়াত বন্ধ করে দিয়েছে। তারা কষ্ট করে সেতুর নিচ দিয়ে খাল পাড় হয়ে যাতায়াত করছে। এতে এলাকাবাসীর যাতায়াতে চরম দুর্ভোগ বেড়েছে। তারা সেতুটি দ্রুত মেরামত ও সংষ্কারের জন্য সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে জোর দাবি জানিয়েছে।

এ ব্যাপারে চৌহালী উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) আনিছুর রহমান বলেন, শিগগিরই সরেজমিনে পরিদর্শন করে সেতুটি সংস্কারের ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.