নেইমারের অনুপস্থিতি দায়িত্ব ডি মারিয়ার কাধে
নেইমারের অনুপস্থিতি দায়িত্ব ডি মারিয়ার কাধে

নেইমার নেই, ডি মারিয়ার জ্বলে উঠার সময় এখনই

নয়া দিগন্ত অনলাইন

প্যারিস সেইন্ট-জার্মেইর বিপক্ষে মঙ্গলবার চ্যাম্পিয়নস লীগের নক আউট পর্বে দ্বিতীয় লেগে মাঠে নামতে যাচ্ছে রিয়াল মাদ্রিদ। ইনজুরির কারণে ঘরের মাঠে খেলা হচ্ছে না পিএসজির তারকা ব্রাজিলিয়ান নেইমারের। কিন্তু নেইমারের অনুপস্থিতি বেশ গুরুত্বের সাথেই দেখছেন রিয়াল কোচ জিনেদিন জিদান ও অধিনায়ক সার্জিও রামোস। কারণ তিনি না থাকায় দলের মূল দায়িত্ব পড়তে যাচ্ছে ডি মারিয়ার ওপর। আর এখনই সময় তার জ্বলে উঠার।

শেষ ১৬’র লড়াইয়ের প্রথম লেগে সানতিয়াগো বার্নাব্যুতে ৩-১ গোলে জয়ী হয়েছির স্বাগতিকরা। কিন্তু তারপরেও প্যারিসের মাটিতে মোটেই আত্মতুষ্টিতে ভুগছে না রিয়াল শিষ্যরা। লীগ ওয়ানের ম্যাচে গত রোববার গোঁড়ালিতে আঘাত পেয়ে নেইমার মাঠের বাইরে চলে গেছেন। নেইমারের অনুপস্থিতি কিছুটা হলেও স্প্যানিশ জায়ান্টদের এগিয়ে রাখছে, অন্যদিকে দলের সবচেয়ে দামী ফুটবলারকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়নস লীগে নিজেদের টিকিয়ে থাকার লড়াইয়ে মাঠে নামতে যাচ্ছে পিএসজি।

যদিও জিদান ও রামোস দু’জনেই মনে করেন নেইমারের অনুপস্থিতি খুব একটা পার্থক্য গড়ে দিবে না। কারণ তাদের দু'জনেরই দৃষ্টি ডি মারিয়ার দিকে। ২০১০ থেকে ২০১৪ পর্যন্ত মাদ্রিদে খেলেছেন এই আর্জেন্টাইন। নেইমারের পরিবর্তে তিনিই হয়ে উঠতে পারেন পিএসজির মূল ভরসা।

নেইমারের ইনজুরি প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে রামোস বলেছেন, সে একজন ভিন্ন মাপের খেলোয়াড়। বিশ্ব ফুটবলে তার মানের ফুটবলার খুব কমই আছে। যেই তার পরিবর্তে খেলুক না কেন তাকে সেই মানের খেলা উপহার দিতে হবে। আমরা নেইমারের বিপক্ষে খেলেছি এবং আমরা তাকে চিনি। কিন্তু ডি মারিয়াও অসাধারণ খেলোয়াড়। আমি মনে করি ডি মারিয়া নিজেকে ভালভাবেই প্রমাণ করতে পারবে। আশা করছি পিএসজি’র বিপক্ষে আমরা নিজেদের মেলে ধরতে পারবো।

 

নেইমারের জন্য বিলাসবহুল রিসোর্ট

ব্রাজিলীয় সুপারস্টার নেইমারের পায়ের অস্ত্রপচার হয়েছে শনিবার। একদিন পর ছেড়ে দেয়া হয়েছে তাকে। এখন বিশ্রামের পালা। এই সময়টা রিও ডি জেনিরোর বিলাসবহুল রিসোর্ট মানগারাতিবায় কাটাবেন নেইমার।

এই রির্সোটে আছে পিএসজি তারকার সুস্থ হয়ে উঠার সব ধরণের সারঞ্জাম। রিসোর্টে জিম ছাড়াও আছে প্রতিদিন ৩০ কেজি বরফ তৈরির একটি স্বয়ংক্রিয় যন্ত্র।

এছাড়া সেখানে হেলিপ্যাড থেকে শুরু করে টেনিস কোর্ট, ফুটবল অনুশীলনের মাঠ, এমনকি একটি জাহাজ ভেড়ানোর জেটিও আছে।

কবে নাগাদ নেইমার মাঠে ফিরতে পারবেন, এ ব্যাপারে এখনো কিছু জানানো হয়নি। তবে অস্ত্রোপচারের পর চিকিৎসক রদ্রিগো লাসমার জানিয়ে ছিলেন, পুরোপুরি সুস্থ হতে কমপক্ষে তিন মাস সময় লাগতে পারে নেইমারের। একজন খেলোয়াড়ের সুস্থ হয়ে ওঠা নির্ভর করে তার শারীরিক সক্ষমতার ওপর। ছয় সপ্তাহের মধ্যে নেইমারের ব্যাপারে একটা সিদ্ধান্তে পৌঁছানো যাবে।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.