অচেতন করে স্কুল ছাত্রী ধর্ষণ চেষ্টা
অচেতন করে স্কুল ছাত্রী ধর্ষণ চেষ্টা

অচেতন করে স্কুল ছাত্রী ধর্ষণ চেষ্টা

রাঙ্গাবালী (পটুয়াখালী) সংবাদদাতা

পানির সাথে ঘুমের ওষুধ মিশিয়ে অচেতন করে পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলার বড়বাইশদিয়া ইউনিয়নে দশম শ্রেণীর এক স্কুল ছাত্রীকে হাত-মুখ বেঁধে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। রোববার রাতে ওই ইউনিয়নের গাইয়াপাড়া লঞ্চঘাট সংলগ্ন এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

স্কুল ছাত্রীর অভিযোগ, রোববার রাত সাড়ে ১১ টার দিকে একই এলাকার পলাশ মৃধা, শাকিল দালাল এবং হেলাল মৃধা নামের বখাটেরা অচেতন অবস্থায় তার ওড়না দিয়ে হাত ও গামছা দিয়ে মুখ বেঁধে ধর্ষণের চেষ্টা করে। একপর্যায় ওই ছাত্রী ঘুম থেকে জেগে চিৎকার দিলে বখাটেরা পালিয়ে যায়। তবে পরিবারের লোকজন অচেতন থাকায় তার ডাক-চিৎকার শুনতে পায়নি।

ওই ছাত্রীর মা বলেন, ‘রোববার দিনে আমাদের অজান্তে ঘরের মধ্যে ঢুকে ওই তিন বখাটে পানির সাথে ঘুমের ওষুধ মেশায়। সেই পানি খেয়ে রাতে আমরা সবাই অচেতন অবস্থায় ঘুমিয়ে থাকি। এ সুযোগে তারা আমার মেয়েকে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। আমি দোষীদের বিচার চাই। স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিদের জানিয়ে আমি থানায় মামলা করেছি।’ এ বিষয়ে সোমবার ওই এলাকার অভিযুক্ত তিনজনের বাড়িতে গিয়ে তাদের না পাওয়ায় বক্তব্য নেওয়া যায়নি।

বিষয়টি নিয়ে রাঙ্গাবালী থানার অফিসার ইনচার্জ মিলন কৃষ্ণ মিত্র বলেন, বড়বাইশদিয়ার এক স্কুল ছাত্রী অভিযোগ করেছে। তবে সেখানে ধর্ষণ চেষ্টার বিষয় উল্লেখ করা হয়নি।

 

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.