নারী ইউপি মেম্বারের শ্লীলতাহানি, দুই মেম্বারকে গণধোলাই
নারী ইউপি মেম্বারের শ্লীলতাহানি, দুই মেম্বারকে গণধোলাই

নারী ইউপি মেম্বারের শ্লীলতাহানি, দুই মেম্বারকে গণধোলাই

চান্দিনা (কুমিল্লা) সংবাদদাতা

কুমিল্লার চান্দিনায় ইউনিয়ন পরিষদের নারী মেম্বারের শ্লীলতাহানির অভিযোগে একই ইউনিয়নের দুই ওয়ার্ড মেম্বারকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে দিয়েছে স্থানীয় জনতা। এ ঘটনায় নারী ইউপি মেম্বার মনোয়ারা বেগম ওয়ার্ড মেম্বার শাহজাহান (৪০) ও আব্দুল করিমকে (৩৪) আসামি করে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

রোববার রাত সাড়ে ১১টায় চান্দিনা উপজেলার ৯ নং মাইজখার ইউনিয়নের মেহার গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আটক শাহজাহান (৪০) উপজেলার মাইজখার গ্রামের মৃত ইয়াকুব আলীর ছেলে। তিনি ওই ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডে মেম্বার এবং আটক আব্দুল করিম একই ইউনিয়নে বীরখাল গ্রামের আব্দুল বারেক মিয়ার ছেলে। তিনি ওই ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ড মেম্বার।

সংরক্ষিত ওয়ার্ড মেম্বার মনোয়ারা বেগম জানান, বিভিন্ন কর্মকাণ্ডে ইউনিয়ন পরিষদে গেলে ওই দুই মেম্বার প্রায়ই তাকে কুপ্রস্তাব দিতেন। রোববার রাত সাড়ে ১১টায় ওই দুই মেম্বার আমার বাড়িতে এসে জরুরি কথা আছে বলে দরজা খোলার জন্য বলেন। দরজা খোলার সাথে সাথে তারা আমাকে শারীরিক নির্যাতন করার চেষ্টা করেন। আমার ও আমার পরিবারের চিৎকারে আশপাশের লোকজন এসে তাদেরকে আটক করে গণধোলাই দেয়। পরে চান্দিনা থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে তাদেরকে আটক করে।

এদিকে, আটক ইউপি মেম্বার শাহজাহান ও করিম জানান, আমরা পরিষদের জরুরি কাজে কথা বলার জন্য ওই মেম্বারের বাড়িতে যাই। কিন্তু সেখানে ষড়যন্ত্রমূলকভাবে আমাদেরকে আটক করে এমন হয়রানি করা হয়েছে।
চান্দিনা থানার অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) মোহাম্মদ আলী মাহমুদ জানান, বাদির অভিযোগের ভিত্তিত্তে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.