ব্যক্তিগত পর্যায়ের উগ্রবাদ দমনের আহ্বান ঢাবি শিক্ষক সমিতির

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক

সাম্প্রতিক ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে সাংগঠনিক তৎপরতার চেয়েও ব্যক্তিগত পর্যায়ের উগ্রবাদ দমন করার আহ্বান জানিয়েছেন বক্তরা।

আজ সোমবার দুপুরে অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে অনুষ্ঠিত মানববন্ধন থেকে এ আহ্বান জানানো হয়।

বিশিষ্ট লেখক ও শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক অধ্যাপক জাফর ইকবালের ওপর হামলার প্রতিবাদে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি এ মানববন্ধনের আয়োজন করে।

এতে উপস্থিত ছিলেন শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল, সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াতুল ইসলাম, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. একেএম গোলাম রব্বানী, অধ্যাপক মুহাম্মদ সামাদ, অধ্যাপক ড. মো. আব্দুল আজিজ, সাদা দলের আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. মো. আখতার হোসেন খান, যুগ্ম-আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. মোর্শেদ হাসান খান, অধ্যাপক ড. সদরুল আমিন, অধ্যাপক লুৎফর রহমান, অধ্যাপক সাদেকা হালিম, অধ্যাপক এজেএম শফিউল আলম ভূইয়া, অধ্যাপক ড. নিজামুল হক ভূইয়া প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, সাংগঠনিক যে উগ্র তৎপরতা বাংলাদেশে ছিল আমাদের সৌভাগ্য আমরা সেখান থেকে রক্ষা পেয়েছি। তারপরেও সমাজের কিছু অর্বাচীন, কিছু আবর্জনা, কিছু নিচু মনের মানুষ থাকে তাদের বিবেকবোধ এতোই অন্ধ যে তাদের মধ্যে মানুষের প্রতি দরদ, মানবপ্রেম নেই।

মানববন্ধনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান বলেছেন, বিচ্ছিন্ন একটি ছেলে কেবল উগ্রবাদিতার কারণে আঘাত হেনেছে, এক্ষেত্রে অন্য চিন্তা, অন্য ধারাকে যদি বিবেচনায় না রাখা হয় তাহলেও কিন্তু বড় আকারের ঝুঁকি থাকবে। এ সময় সাংগাঠনিক জঙ্গি তৎপরতা থেকে আপাতত রক্ষা পাওয়ার ক্ষেত্রে ব্যক্তিগত পর্যায়ের উগ্রবাদ দমানোর আহ্বান জানান তিনি।

উগ্রবাদকে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে কাজে লাগানো হতে পারে এমন আশঙ্কা করে ঢাবি ভিসি বলেন, এই ২০১৮ নির্বাচনের বছরে, গণতন্ত্রায়নের বছরে নানাবিধ অপশক্তির উত্থান ঘটবে। সেখানে কেউ হয়তোবা উগ্রবাদের উত্থান ঘটাবে। এ থেকে কেউ রাজনৈতিক ফায়দা লোটার চেষ্টা করবে।

অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল বলেন, একদিকে মত প্রকাশের স্বাধীনতার প্রতি শ্রদ্ধাশীল, মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী, আরেক দিকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে মানে না, গণতান্ত্রিক চেতনাকে বাধাগ্রস্থ করতে চায়, বিজ্ঞান মনস্ক মানুষের প্রতি আঘাত হানে, তারাই বারবার জাফর ইকবালের মতো মানুষদের প্রতি আঘাত হেনেছে।

তিনি এ সময় শিক্ষার্থীদের মধ্যে উগ্রবাদী তৎপরতা প্রতিরোধে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের সাথে বসে কর্মপ্রক্রিয়া ঠিক করার আহ্বান জানান।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.