যাত্রাবাড়ীতে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে মা-মেয়ের মৃত্যু, ডিপিডিসির দুঃখ প্রকাশ

নিজস্ব প্রতিবেদক

রাজধানীর যাত্রাবাড়ী এলাকায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মা-মেয়ের মৃত্যু হয়েছে।

তারা হলেন- মা শাহানারা বেগম (৪০) ও মেয়ে শারমিন (১৩)।

এ ঘটনায় সাজেদা (৩৮) নামে শারমিনের এক খালা ও বাড়ির ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে থাকা জোছনা (৪০) নামে আরেক নারী আহত হয়েছেন।

আহতদের ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে।

আজ বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় দু:খ প্রকাশ করেছে ডিপিডিসি কর্তৃপক্ষ।

যাত্রাবাড়ী থানার ওসি আনিছুর রহমান জানান, যাত্রাবাড়ীর শেখদি আবুল মোল্লা স্কুল রোডের একটি একতলা ভবনে পরিবার নিয়ে থাকতেন শাহানারা বেগম। ওই বাসার ছাদে বসে মেয়ে শারমিন এবং ছোট বোন সাজেদাসহ চারজন মিলে কাঁথা সেলাই করছিলেন। বিকেলে ওই ছাদে থাকা একটি রডের সাথে বৈদ্যুতিক তার জড়িয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মা-মেয়ে মারা যান।

আহত সাজেদা বেগমের স্বামী ফিরোজ মৃধা জানান, বিকেলে তার স্ত্রী শারমিনদের বাসায় বেড়াতে যায়। তারা একসাথে নির্মাণাধীন ওই ভবনের ছাদে কাঁথা সেলাই করছিল। শারমিন ছাদের একটি রড ধরলে তা পাশে থাকা ৪৪০ ভোল্টের বৈদ্যুতিক তারের সাথে জড়িয়ে পড়ে। তার মা শাহানারা মেয়েকে বাঁচাতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হন। তাদের দু’জনকে বাঁচাতে গিয়ে আহত হয় অপর দু’জন। আহতদের হাত ঝলসে গেছে।

জানা গেছে, শাহানারা বেগমের স্বামীর নাম দেলোয়ার হোসেন। তিনি রাজমিস্ত্রির কাজ করেন। আর নিহত শারমিন স্থানীয় আব্দুল মোল্লা স্কুল অ্যান্ড কলেজের ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী ছিলো।

বার্ন ইউনিটের আবাসিক সার্জন ডা. পার্থ শংকর পাল জানান, জোছনা বেগমের শরীরের ২৫ শতাংশ ঝলসে গেছে। তার ডান হাতের কব্জি বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে এবং সাজেদা বেগমের দুই হাত ঝলসে গেছে।

এদিকে, মা-মেয়ের মৃত্যুর ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করছে ডিপিডিসি কর্তপক্ষ।

আজ রাতে ডিপিডিসির প্রধান প্রকৌশলী এনওসিএস (দক্ষিণ) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তি এই দুঃখ প্রকাশ করেন।

এতে বলা হয়, বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে এনওসিএস কাজলা, ডিপিডিসি’র আওতাধীন ডেমরা থানার অন্তর্গত পূর্ব শেখদি এলাকার একটি নির্মাণাধীন ভবনের ছাদে একটি শিশু লোহার রড নিয়ে খেলতে গিয়ে পার্শ্ববর্তী নিরাপদ দূরত্বে (৭ ফুট) বিদ্যমান ১১ কেভি বৈদ্যুতিক লাইনের সাথে তড়িতাহত হয়ে মৃত্যুবরণ করে।

শিশুটিকে বাঁচাতে গিয়ে তার মাও তড়িতাহত হয়ে তাৎক্ষণিক মারা যায়। এরূপ দুঃখজনক দুর্ঘটনার জন্য ডিপিডিসি আন্তরিকভাবে দুঃখ প্রকাশ করছে। ভবিষ্যতে এ ধরণের কোনো দুর্ঘটনা এড়াতে কোনো ভবন সন্নিহিত বৈদ্যুতিক লাইন হতে নিরাপদ দূরত্বে থাকা এবং ভবনের ছাদে খেলাধুলা কিংবা কাজ করার সময়ে সবাইকে বিদ্যুৎ লাইন হতে নিরাপদ দূরত্বে থাকার পরামর্শ দেয়া হয়।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.