বইমেলায় গিয়ে আমার আশা মিটল না

বইমেলা শেষ। কিন্তু ব্যতিক্রমধর্মী কিছু পাঠক তাদের চাহিদামতো বই না পেয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। আসুন কে কী ধরনের বই খুঁজে পায়নি দেখা যাক। লিখেছেন মোহাম্মদ মাঈন উদ্দিন

স্ট্যাটাস প্রেমিক : মেলায় অনেক ঘোরাঘুরি করলাম। পায়ের ধূলি মাথায় উঠল। কত ধূলি নাক দিয়ে ঢুকে ফুসফুস ভর্তি হলো। শরীরের এনার্জি ক্ষয় হলো কিন্তু সাধ না মিটল। কী করে মিটবে? কত খায়েশ করে ‘জ্ঞানী ব্যক্তিদের অমর স্ট্যাটাস মার্কা একখান বই কিনতে মেলায় গেলাম কিন্তু পেলাম না! জ্ঞানী ব্যক্তিদের বাণী যদি লিপিবদ্ধ হয় কিন্তু জ্ঞানী ব্যক্তিদের স্ট্যাটাস লিপিবদ্ধ হয় না। হায়রে কত জ্ঞানগর্ভ স্ট্যাটাস যে নষ্ট হলো! আসলে বুঝে না, কোনো লেখকই বুঝে না।

টাকপ্রিয় ব্যক্তি : টাক্কু মাথা মানেই বড় লোক হওয়ার চিহ্ন। চুল নাশক কত মলম ব্যবহার করলাম কিন্তু মাথায় টাকও পড়ল না আর বড়লোকও হওয়া গেল না। আমার রক্ত উকুনের বড়ই পছন্দ। বউয়ের মাথার সব উকুন রক্ত খাওয়ার খায়েশে আমার মাথায় নিরাপদ আশ্রয় নেয়। এক দিকে গরমের চুলকানি অপর দিকে উকুনের পিলপিল চলার চুলকানি। উহ্ অসহ্য। বড় আশা করে বইমেলায় গেলাম ‘বাবরি মাথায় টাক আজই হয়ে যাক’Ñ এ ধরনের একখানা বই কিনতে কিন্তু পেলাম তার উল্টো ‘টাক আজই ঢেকে যাক’। কিসের মধ্যে কি পানতা ভাতে ঘি।

ব্যর্থ প্রেমিক : আমি তোমাকে...পরের শব্দটি ঠিকঠাক বলতে না পারায় কত প্রেম যে পিছলে গেল। ভালোবাসি বলতে গিয়ে গলা শুকিয়ে যায়। চোখ উল্টে কপালে ওঠে। বুক ধুকধুক করে। তাই আমি তোমাকে ভালোবাসি না বলে, বলে ফেলি আমি তোমাকে খাওয়াবো। ব্যস, মেয়েরা পেট ভরে খেয়ে যায় আর আমি ধরা খাই কিন্তু ভালোবাসি কথাটি হয়নি বলা। কী করে হবে, আমার বুকে সাহসের তীব্র সঙ্কট যে। তাই সাহস বাড়ানোর কলাকৌশল জানার বইমেলায় হন্যে হয়ে খুঁজলাম, কোথাও পেলাম না। একেই বলে ‘ব্যর্থ প্রেমিক যে দিক চায় সাগর শুকিয়ে যায়’।

স্ত্রী ভীতু স্বামী : ভালোবেসে বিয়ে করলে নাকি বউ পাওয়া যায় কিন্তু ভলোবাসা হারিয়ে যায়Ñ কথাটা আগে বুঝিনি। কত আশা নিয়ে ভালোবেসে বিয়ে করলাম অথচ বউ এখন আমাকে দৌড়ের ওপর রাখে। আমি এক কথা বললে বউ বলে তিন কথা। বউকে এক জারি দিলে বউ আমাকে দেয় তিন জারি। বউয়ের জারি আর ভাল্লাগে না। মাঝে মধ্যে ভাবি, বউকে আবার ভূতে আঁচড় করল কি না। মেলায় কত্ত ধরনের বই কিন্তু মাগার ‘বউ বশীভূতকরণ’ জাতীয় বই কোথাও খুঁজে পেলাম না।

 

 

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.