প্রতিভা ও আত্মবিশ্বাস থাকলে প্রতিটি কাজে সফলতা পাওয়া যায় : নাসরিন জাহান নজরুল সঙ্গীতশিল্পী

বদরুন নেসা নিপা


‘ভোরবেলা ফজরের নামাজ আদায় করে গানের রেয়াজের মধ্য দিয়ে দিনটা শুরু করি। রাতে ঘুমানোর আগেও কিছুক্ষণ গান শুনি। গান ছাড়া একটি দিনও আমি ভাবতে পারি না।’ কথাগুলো বলছিলেন সঙ্গীতশিল্পী নাসরিন জাহান। শৈশব থেকে সঙ্গীতের পরিবেশে বেড়ে ওঠা। মা মনোয়ারা বেগম ছিলেন নজরুলসঙ্গীতশিল্পী। আর বাবা নাজমুল হক ছিলেন বাংলাদেশ বেতারের (ঢাকা কেন্দ্রের) উপ প্রধান প্রকৌশলী। সঙ্গীতচর্চা শুরু করেন বাবার অনুপ্রেরণায়। সঙ্গীতের প্রথম তালিম মায়ের কাছেই। এ ছাড়া বিশেষভাবে তালিম নেন ওস্তাদ ফুল মোহাম্মদ, নারায়ণচন্দ্র বসাক, তপনকান্তি বৈদ্য, সুবীন দাস, সোহরাব হোসেন, অঞ্জলি রায় ও আজাদ রহমানের কাছ থেকে। ছায়ানট থেকে নজরুল ও উচ্চাঙ্গসঙ্গীত শেখেন। এ ছাড়া শিল্পকলা একাডেমি থেকে উচ্চতর বৃত্তিমূলক শিক্ষা গ্রহণ করেন। তিনি ১৯৯৫ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সমাজবিজ্ঞানে কৃতিত্বের সাথে এমএসএস পাস করেন। সুরেরসাধনায় নিবেদিতপ্রাণ শিল্পী হিসেবে নাসরিন জাহান নজরুল শিল্পী পরিষদের পরিচালনা কমিটির সাথে, নজরুল শিল্পী সংস্থায় এবং নজরুল ইনস্টিটিউটের সদস্য হিসেবে সক্রিয় ভ‚মিকা রেখে আসছেন। বাংলাদেশ টেলিভিশন ঢাকা কেন্দ্রের ‘এ’ গ্রেডের তিনি একজন নজরুলসঙ্গীতশিল্পী। এ ছাড়া বাংলাদেশ বেতার ঢাকা কেন্দ্রের আধুনিক গান ও নজরুল সঙ্গীতের বিশেষ গ্রেডের শিল্পী নাসরিন জাহান। সঙ্গীত নিয়ে তিনি বলেন, সঙ্গীত সাধনার বিষয়। গান গাইতে হলে অবশ্যই এর প্রতি ভালোবাসা থাকতে হবে। বেশি বেশি গান শুনতে হবে। নজরুল সঙ্গীতের ক্ষেত্রে, নজরুলের সুরের ভুবনে বিচরণ করতে হবে। নজরুলের বৈচিত্র্যময় সুরের, রাগের গানগুলো সঠিকভাবে শিখতে ও গাইতে হবে। তাহলেই সঙ্গীত প্রচারের সাথে সাথে পরিশুদ্ধভাবে প্রসারও হবে।
বর্তমানে মেয়েদের গান করার পরিবেশ প্রসঙ্গে বলেন, মেয়েদের রাত পর্যন্ত প্রোগ্রাম করা, টিভি শো করা, ভিডিও রেকর্ডিংয়ের জন্য বিভিন্ন স্পটে যাওয়াÑ আমাদের সময় মেয়েদের জন্য খুব কঠিন ছিল। সেই প্রেক্ষাপটটা অনেকটাই পাল্টে গেছে। এখন অনেক মেয়েই গানকে পেশা হিসেবে নিয়েছে। পড়াশোনার পাশাপাশি সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডে নিজেকে সম্পৃক্ত করছে মেয়েরা। টিভি শোগুলোতে অংশ নিচ্ছে। পরিবার থেকেও উৎসাহ ও সহযোগিতা পাচ্ছে। প্রতিভা ও আত্মবিশ্বাস থাকলে এবং প্রতিটি কাজ ভালোবেসে করলে সফলতার স্বাদ পাওয়া যায়। প্রকৃত শিল্পী সঙ্গীতের মাঝে আর শ্রোতাদের ভালোবাসার মধ্যেই চিরদিন বেঁচে থাকে।
নাসরিন জাহানের ‘উদাসী বীণা বাজে’ নামে একটি সিডি বের হয় ২০০৪ সালে। কলের গান কোম্পানির ব্যানারে বাসুদেব ঘোষের ১০টি গান তার কণ্ঠে ইউটিউবে প্রকাশ পায়। সম্প্রতি আধুনিক গান ও নজরুল সঙ্গীতের দুটো সিডি বের হয়েছে।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.