আমি কখনই স্বৈরাচার ছিলাম না : এরশাদ
আমি কখনই স্বৈরাচার ছিলাম না : এরশাদ

আমি কখনই স্বৈরাচারী ছিলাম না : এরশাদ

বিশেষ সংবাদদাতা

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন, অনেকে আমাকে স্বৈরাচার বলেন, কিন্তু আমি বুঝি না, কী স্বৈরাচারী করেছি আমি তা খুঁজে পাই না। এমনকি করেছি যে আমাকে স্বৈরাচার বলা হয়? আমি ক্ষমতা ধরে রাখতে চাইনি, আমি কখনোই স্বৈরাচার ছিলাম না।

শনিবার জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানের বনানীর কার্যালয়ে এক যোগদান অনুষ্ঠানে অবৈধভাবে ক্ষমতা দখলের পর গণআন্দোলনে পদত্যাগে বাধ্য হওয়া এরশাদ দাবি করেছেন।

সাবেক মন্ত্রী এম কোরবান আলী ছেলে এম তারেক আলীর নেতৃত্বে বিপুল সংখ্যক বিভিন্ন পেশার মানুষ পার্টির চেয়ারম্যান এরশাদের ফুলের তোড়া দিয়ে জাতীয় পার্টিতে যোগদান করেন। এসময় পার্টির মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার এমপি, পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য অধ্যাপক দেলোয়ার হোসেন খান, এডভোকেট সেখ সিরাজুল ইসলাম, ভাইস চেয়ারম্যান জহিরুল ইসলাম জহিরসহ কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

আগামী নির্বাচনের জন্য জাতীয় পার্টির ৩০০ প্রার্থী চূড়ান্ত করা হচ্ছে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ দূত এরশাদ বলেন, রাষ্ট্রের দায়িত্ব নেওয়ার কোনো ইচ্ছা তার ছিল না। জাস্টিস সাত্তারের অনুরোধে দায়িত্ব নিয়েছিলাম, তিনি তখন দেশ চালাতে অপারগ ছিলেন। আমি নির্বাচন দিয়ে ব্যারাকে ফিরে যেতে চেয়েছিলাম। কেউ নির্বাচনে আসেনি, আমাকে বাধ্য হয়ে দল গঠন করতে হয়েছে।

এরশাদবিরোধী আন্দোলনের নেতৃত্বদাতা দুই প্রধান রাজনৈতিক দলের রেষারেষিতে এখনো দেশের রাজনীতিতে গুরুত্ব নিয়ে থাকা এরশাদ দাবি করেন, দেশের মানুষ এখন তাকেই ক্ষমতায় চায়। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের কাছে বিএনপি নিরাপদ নয়, বিএনপির কাছে আওয়ামী লীগ নিরাপদ নয়। মানুষ শান্তিতে থাকতে চায়, নিরাপদে থাকতে চায়। আমি বলতে চাই, আমার কাছে সবাই নিরাপদ। তিনি বলেন,

একুশের মাসে এই আলোচনা অনুষ্ঠানে এরশাদ বলেন, ইংরেজি সাইনবোর্ডের নিচে বাংলা চালু করা আমিই প্রথম শুরু করি। আমিই অগ্রদূত। আমি ক্যালেন্ডারে ইংরেজির নিচে বাংলা চালু করাও বাধ্যতামূলক করেছিলাম।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.