তিন চলচ্চিত্রে তিশা
তিন চলচ্চিত্রে তিশা

তিন চলচ্চিত্রে তিশা

অভি মঈনুদ্দীন

বাংলাদেশের চলচ্চিত্রে এবং নাটকে সমান জনপ্রিয়তা নিয়েই তিশা এগিয়ে চলেছেন। নিজেকে তিশা শুধু অভিনয় দিয়েই এমন একটি অবস্থানে নিয়ে গেছেন যেখানে নতুন প্রজন্মের অভিনয়শিল্পীরা তার অভিনয়কে অনুপ্রেরণা নিয়ে অভিনয়ের পথে এগিয়ে চলেন। অনেক চলচ্চিত্র নির্মাতা চ্যালেঞ্জিং চরিত্রে তিশা’র বিকল্প কাউকে ভাবতেও চান না। নির্মাতাদের কাছে তিশা এই গ্রহণযোগ্যতা তৈরি করেছেন শুধুই তার অনবদ্য এবং মনোমুগ্ধকর অভিনয় দিয়ে।

সর্বশেষ মোস্তফা সরয়ার ফারুকী পরিচালিত ‘ডুব’ এবং তৌকীর আহমেদ পরিচালিত ‘হালদা’ চলচ্চিত্রে অনবদ্য অভিনয়ের জন্য দারুণ প্রশংসিত হয়েছেন নন্দিত অভিনেত্রী নূসরাত ইমরোজ তিশা। যে কারণে বছরের গেল বছরের শেষপ্রান্তে এসে তিশা ছিলেন বেশ আলোচনায়। বছরের শুরুতেও তিশা সমান আলোচনায় থেকেই এরইমধ্যে মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর নির্দেশনায় ‘শনিবারের বিকেল’ চলচ্চিত্রের শুটিং শেষ করেছেন। এই চলচ্চিত্রে তিনি রাইসা চরিত্রে অভিনয় করেছেন। এছাড়া প্রায় শেষ করেছেন মুকুল রায় চৌধুরীর নির্দেশনায় ‘হলুদবনি’ চলচ্চিত্রের কাজ।

আগামী ২২ ফেব্রুয়ারি তিনি আবারো এই চলচ্চিত্রের শুটিং-এ অংশ নিবেন। এই চলচ্চিত্রে তিশা অভিনয় করছেন অনু চরিত্রে। এছাড়া আগামী ২০ মার্চ থেকে তিশা অরিন্দম শীলের নির্দেশনায় ‘বালিঘর’ চলচ্চিত্রের শুটিং শুরু করবেন।

চলচ্চিত্রের বর্তমান প্রসঙ্গে তিশা বলেন,‘আমাদের চলচ্চিত্রের সার্বিক অবস্থা এখন ভালো। আমি আরো আশাবাদী আগামীতে আামাদের চলচ্চিত্রের অবস্থান আরো ভালো হবে এবং অবশ্যই দর্শক বাড়বে। সর্বশেষ আয়নাবাজি, ঢাকা অ্যাটাক, ডুব, হালদা কিন্তু দর্শক হলে গিয়ে উপভোগ করেছেন এবং দর্শক এসব চলচ্চিত্রে উপভোগ করেছেন আনন্দ নিয়ে। শুধু চলচ্চিত্রেরই নয় নাটকের দর্শকও আগের চেয়ে অনেকাংশে বেড়েছে। আমি সবসময়ই আমাদের দেশের নাটক, চলচ্চিত্র নিয়ে আশাবাদী।’

এদিকে মঙ্গলবার তিশার জন্মদিন। জন্মদিন প্রসঙ্গে তিশা বলেন,‘ জন্মদিনে সাধারণত আমার নিজের কোন পরিকল্পনা থাকে না। সবাই পরিকল্পনা করেন, আমি তা উপভোগ করি। জন্মদিনে সবার কাছে দোয়া চাই যেন আল্লাহ ভালো রাখেন, সুস্থ রাখেন এবং দর্শককে ভালো ভালো কাজ উপহার দিতে পারি।’

এদিকে ভালোবাসা দিবসে সাগর জাহানের ‘মধ্যবিত্ত ফ্রিজ’ এবং ইমরাউল রাফাতের ‘আজ নীতুর গায়ে হলুদ’-এ তিশার অনবদ্য অভিনয়ে মুগ্ধ হয়েছেন দর্শক। 

ছবি : মোহসীন আহমেদ কাওছার

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.