বিমানবন্দরে পুলিশ কর্মকর্তার কাণ্ড!

নিজস্ব প্রতিবেদক
কোনো পূর্বানুমতি ছাড়াই শুধু পুলিশের পোশাক পরেই নিকটাত্মীয়কে তুলতে গিয়ে উড়োজাহাজের ভেতরে আটক হন আশিকুর রহমান নামে এক পুলিশ কর্মকর্তা। ‘নিরাপত্তা ঝুকির’ কথা জানিয়ে পাইলট পুলিশ কর্মকর্তাকে ইমিগ্রেশন পুলিশের হাতে হস্তান্তর করেন। যার কারণে নির্ধারিত সময়ের আধঘণ্টা বিলম্বে থাইল্যান্ডের রাজধানী ব্যাংককের উদ্দেশ্য থাই এয়ারওয়েজের বিমানটি হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ত্যাগ করে। ঘটনাটি ঘটে গত শনিবার মধ্যরাতে। 
গতকাল রাতে হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের একজন কর্মকর্তা নয়া দিগন্তকে বলেন, ঢাকা রেঞ্জে কর্মরত পুলিশের সাব ইন্সপেক্টর আশিকুর রহমান শনিবার রাতে ব্যাংককগামী একটি ফাইটে তার এক নিকটাত্মীয়কে তুলতে বিমানবন্দরে যান। এ সময় তিনি কারো সাথে কোনো ধরনের কথা না বলেই যাত্রীর সাথে ৫ নম্বর বোর্ডিং ব্রিজ দিয়ে থাই এয়ারওয়েজের এয়ারক্রাফটে উঠে পড়েন। এরপর তিনি সেখানে তাদের সাথে কথা বলেন। বিষয়টি কেবিন ক্রুর মাধ্যমে পাইলট অবহিত হলে বিমানের ভেতরেই ওই কর্মকর্তাকে আটক করা হয়। পরে এ নিয়ে পাইলট ফাইট চালাতে অস্বীকৃতি জানান। 
খবর পেয়ে সিভিল অ্যাভিয়েশন, আমর্ড পুলিশসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের হস্তক্ষেপে পুলিশ কর্মকর্তাকে ইমিগ্রেশনের কাছে তুলে দেয়া হয়। যার কারণে ফাইটটি নির্ধারিত সময়ের আধঘণ্টা বিলম্বে ঢাকা ত্যাগ করে। ওই কর্মকর্তা বলেন, ভুলবশত পুলিশ কর্মকর্তা স্পর্শকাতর এলাকা দিয়ে এয়ারক্রাফটে উঠে পড়েছিলেন। পরে পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের হস্তক্ষেপে তিনি ছাড়া পান। 
আটক পুলিশ কর্মকর্তা সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের বলেন, তিনি তার মামিকে এগিয়ে দিতে বিমানের ভেতরে গিয়েছিলেন।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.