ইরানি কুস্তিগির নিষিদ্ধ

ক্রীড়া ডেস্ক

পোলান্ডে অনুষ্ঠিত অনূর্ধ্ব-২৩ বিশ্ব কুস্তি চ্যাম্পিয়নশিপে ইসরাইলের কুস্তিগিরের সাথে প্রতিযোগিতা থেকে সরে দাঁড়ানোর জন্য রুশ কুস্তিগিরের সাথে ইচ্ছে করে হেরে যাওয়ায় দি ইউনাইটেড ওয়ার্ল্ড রেসলিং ইরানের কুস্তিগির আলীরেজা কারিমিকে ছয় মাসের জন্য এবং বিধি ভঙ্গের কারণে তার কোচ হামিদরেজা জামসিদিকে দুই বছরের জন্য নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে হয়েছে। আন্তর্জাতিক কুস্তি অঙ্গনে নিষিদ্ধ হলেও ইরান সরকার অবশ্য আলীরেজাকে বীরোচিত সংবর্ধনা দেয়।
আন্তর্জাতিক ওই আসরে ইরানের আলীরেজা কোয়ার্টার ফাইনালে রুশ কুস্তিগির আলীখান ঝাবরাভিলভের কাছে ইচ্ছে করে হারের জন্য কোচ তাকে উদ্বুদ্ধ করেন। আলীখানের সাথে জিতলে আলীরেজাকে খেলতে হতো ইসরাইলের কুস্তিগীরের সাথে।
এটি নতুন কোনো ঘটনা নয় ইরানের জন্য। ইরানের অনেক খেলোয়াড় ইসরাইলের আগ্রাসী মনোভাব, ফিলিস্তিনিদের ওপর বর্বর নির্যাতনের কারণে দেশটির খেলোয়াড়দের সাথে খেলতে অস্বীকার করে থাকে। ২০০৪ সালে বেইজিং অলিম্পিকে ইসরাইলি সাঁতারু থাকায় একই সুইমিংপুল থেকে সরে দাঁড়ান ইরানের সাঁতারু। একই বছর এথেন্স গেমসে ইরানি জুডোকা ইসরাইলে জুডোকার সাথে খেলতে অস্বীকৃতি জানান। ১৯৮৩ সালে ইউক্রেনের কিয়েভে ইরান ও ইসরাইলের কুস্তিগিরের মধ্যে সর্বশেষ প্রতিযোগিতা হয়।

 

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.