শিক্ষা ও স্বাস্থ্য খাতে বরাদ্দ বাড়ানোর তাগিদ

নিজস্ব প্রতিবেদক

পল্লী কর্ম-সহায়ক ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ড. কাজী খলিকুজ্জামান আহমাদ বলেছেন, স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উত্তরণের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে জাতীয় মর্যাদা। এই মর্যাদা আমারা যোগ্যতার ভিত্তিতে অর্জন করেছি, এটি কারো দয়া-দাক্ষিণ্য নয়। বিশ্ববাণিজ্যে স্বল্পোন্নত দেশগুলো যেসব সুযোগ সুবিধা ভোগ করে, তার কিছু কিছু হয়ত আমরা হারাব, কিন্তু আমাদের এখন সামনে তাকাতে হবে, যাতে সাহায্যের বদলে আমরা নিজেরাই কিছু করতে পারি।

শনিবার সিরডাপ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত “স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উত্তরণ ও টেকসই উন্নয়ন: প্রেক্ষিত বাংলাদেশ” শীর্ষক একটি সেমিনারে খলিকুজ্জামান আহমেদ এসব কথা বলেন।

এতে সুশীল সমাজ প্রতিনিধিরা স্বল্পোন্নত দেশ থেকে টেকসই উত্তরণের জন্য ভালো প্রস্তুতির দাবি জানান। কারণ, স্বল্পোন্নত দেশ হিসেবে বিশ্ববাণিজ্যে যেসব সুযোগ পেত বাংলাদেশ, তা আর পাওয়া যাবে না। তারা আরো দাবি করেন, টেকসই উন্নয়নের লক্ষে বিভিন্ন খাতে বিদ্যমান বৈষম্য দূর করতে যথাযথ পদক্ষেপ নিতে হবে।

ইক্যুইটিবিডি এবং এলডিসি ওয়াচের যৌথ আয়োজনে অনুষ্ঠিত সেমিনারে পরিকল্পনা কমিশনের সাধারণ অর্থনৈতিক বিভাগের (জিইডি) সদস্য উর্ধ্বতন সচিব ড. শামসুল আলমসহ, অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের (ইআরডি) অতিরিক্ত সচিব মো. আনোয়ার হোসেন, ডাব্লিউটিও সেলের পরিচালক মো. হাফিজুর রহমান বক্তব্য রাখেন।

সেমিনারে আরো বক্তব্য রাখেন এলডিসি ওয়াচের আন্তর্জাতিক সমন্বয়কারী নেপালের গৌরি প্রধান। মূল বক্তব্য উপস্থাপন করেন কোস্ট ট্রাস্টের উপ-পরিচালক সৈয়দ আমিনুল হক এবং সঞ্চালকের দায়িত্ব পালন করেন ইক্যুইটিবিডির প্রধান সঞ্চালক রেজাউল করিম চৌধুরী।

সৈয়দ আমিনুল হক তার মূল বক্তব্য উপস্থাপনায় এ বিষয়ে ইক্যুইটিবিডি ও এলডিসি ওয়াচের সুপারিশসমূহ তুলে ধরেন। তার সুপারিশে রয়েছে- সরকারের নিজস্ব বিনিয়োগ সামর্থ বাড়াতে কর ফাঁকি ও অবৈধ অর্থ পাচার বন্ধে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ। স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উত্তরণের মূল চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে প্রয়োজনীয় দক্ষ জনশক্তি বাড়ানোর লক্ষে শিক্ষা ও স্বাস্থ্য খাতে বরাদ্দ বাড়ানো। উপকূলীয় মানুষ ও সম্পদ বাঁচাতে জলবায়ু মোকাবেলায় সক্ষম অবকাঠামো গড়ে তোলা ও উন্নয়ন কার্যকারিতা বাড়াতে কার্যকর সুশাসন প্রতিষ্ঠা করা।

ড. শামসুল আলম তার বক্তব্যে বলেন, বাংলাদেশের বর্তমান শিক্ষা ব্যবস্থা আমাদের উন্নয়ন চাহিদা শতভাগ পূরণ করছে না। স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উত্তরণের কালে বাংলাদেশকে যে সংকট মোকাবেলা করতে হতে পারে তার জন্য মানসম্পন্ন শিক্ষার ব্যবস্থাই হওয়া উচিত আমাদের মূল মনোযোগ। তিনি আরো বলেন, ২০২৭ সালের পর বাংলাদেশ নিজেই একটি বিনিয়োগকারী দেশে পরিণত হবে। ফলে আমাদের আর বৈদেশিক সাহায্য প্রয়োজন হবে না।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.