ঢাকা, শনিবার,২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

ক্রিকেট

২০২১ চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি ভারতের বদলে বাংলাদেশে!

নয়া দিগন্ত অনলাইন

১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮,বুধবার, ১৮:৫৫


প্রিন্ট
২০২১ চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি ভারতের বদলে বাংলাদেশে!

২০২১ চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি ভারতের বদলে বাংলাদেশে!

২০২১ সালের আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির আয়োজক হতে চায় পাকিস্তান। আগেই মেগা এ ইভেন্টের আয়োজক হিসেবে ভারতকে বেছে নেয় ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)। তবে কর সংক্রান্ত জটিলতায় ভারতের অবস্থান দুর্বল হবার কারণে সুযোগটি গ্রহণ করতে চায় পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। তবে ইতোপূর্বে বেশ কয়েকটি মেগা আয়োজন সফলভাবে আয়োজন করায় বাংলাদেশের নামও আলোচনায় আসবে।

টুর্নামেন্টটি ভারতে হলে সেখান থেকে পর্যাপ্ত অর্থ না পাওয়ার শংকায় তৎপর হয়ে উঠেছে আইসিসি। তাদের মতে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির বিশাল একটি টুর্নামেন্ট আয়োজনে একটি ‘মানসম্মত চর্চার’ প্রয়োজন।
এ কারণে বিকল্প ভেন্যু অন্বেষণের একটি সংবাদ বিজ্ঞপ্তি ইস্যু করেছে আইসিসি। এর ভিত্তিতে বাংলাদেশ ও শ্রীলংকারও এই টুর্নামেন্ট আয়োজনের সুযোগ রয়েছে। পাকিস্তান চায় সংযুক্ত আরব আমিরাতে এই টুর্নামেন্ট আয়োজন করতে। যেখানে কয়েকটি ম্যাচ পাকিস্তানে আয়োজনেরও সুযোগ থাকবে।

পাকিস্তানের কর্মকর্তাদের ধারনা পিসিবির প্রস্তাব আইসিসি গুরুত্ব সহকারে বিবেচনা করবে। আসন্ন পাকিস্তান সুপার লীগের (পিএসএল) ফাইনাল করাচিতে আয়োজন এবং টুর্নামেন্টের দুটি প্লে অফ ম্যাচ লাহোরে আয়োজনের মাধ্যমে দেশটি এ বিষয়ে নিজেদের অবস্থানকে আরো জোড়ালো করতে চায় বলে স্থানীয় আহমেদাবাদ মিররের রিপোর্টে বলা হয়েছে।

২০০৯ সালে লাহোরে সফররত শ্রীলংকান ক্রিকেট দলের ওপর সশস্ত্র হামলার পর থেকেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট আয়োজন থেকে নির্বাসিত রয়েছে পাকিস্তান। ওই ঘটনায় আট ব্যক্তি নিহত এবং সফরকারী ক্রিকেট দলের ৭ খেলোয়াড় আহত হয়।

এরপর থেকে পাকিস্তান তাদের হোম সিরিজগুলোর আয়োজন করে আসছে সংযুক্ত আরব আমিরাতে। এখন কর্তৃপক্ষ চায় নিজ দেশে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফিরে আসুক। গত বছর আয়োজিত পিএসএলের ফাইনাল ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়েছিল লাহোরে। ওই ম্যাচে বেশ কজন বিদেশী খেলোয়াড়ও অংশ নিয়েছিল। তবে নিরাপত্তা শংকায় অংশগ্রহণকারী দলের অনেক বিদেশী ক্রিকেটার পাকিস্তান সফরে যাননি।

এরপর গত সেপ্টেম্বরে বিশ্ব একাদশের বিপক্ষে একটি টি-২০ ম্যাচের আয়োজন করে পাকিস্তান। অক্টোবরে শ্রীলংকার বিপক্ষে আরেকটি টি-২০ ম্যাচও আয়োজন করে। দুটি ম্যাচই অনুষ্ঠিত হয়েছে লাহোরে।


ছয় মাসের মধ্যে তৃতীয়বারের মতো শীর্ষে ভারত
গেল ছয় মাসের মধ্যে তৃতীয়বারের মতো আইসিসি ওয়ানডে র‌্যাংকিং-এর শীর্ষে উঠলো ভারত। গতরাতে পোর্ট এলিজাবেথে পঞ্চম ম্যাচে স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকাকে ৭৩ রানে হারিয়ে সিরিজ জয় নিশ্চিত করায় ওয়ানডেতে আবারো শীর্ষে উঠে আসে ভারত। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সিরিজের ষষ্ঠ ও শেষ ম্যাচে হারলেও শীর্ষস্থান অটুট থাকবে ভারতের। আর জিতলে শীর্ষস্থান শক্তপোক্ত হবে টিম ইন্ডিয়ার। টেস্ট র‌্যাংকিং-এর শীর্ষস্থানও দখলে রেখেছে ভারত।

দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ছয় ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ শুরুর আগে দ্বিতীয়স্থানে ছিল ভারত। সিরিজের প্রথম দু’ম্যাচ জিতে শীর্ষে উঠে আসে ভারত। তৃতীয় ওয়ানডেও জিতেছিলো তারা। তবে চতুর্থ ওয়ানডে জিতে র‌্যাংকিং-এ ভারতের পাশে বসেছিল দক্ষিণ আফ্রিকা। কিন্তু পঞ্চম ওয়ানডে জয়ের পর আবারো শীর্ষস্থান দখলে নেয়। সেই সাথে দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে প্রথমবারের মতো ওয়ানডে সিরিজ জয়ের কীর্তিও গড়ে বিরাট কোহলির দল।

সিরিজের শেষ ওয়ানডে জিতলে র‌্যাংকিং-এ শীর্ষস্থান আরো শক্তপোক্ত করবে ভারত। শেষ ম্যাচ জিতলে ভারতের রেটিং হবে ১২৩। দক্ষিণ আফ্রিকার হবে ১১৭।
দ্বিতীয়স্থানে নেমে যাওয়া দক্ষিণ আফ্রিকার ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলছে তৃতীয়স্থানে থাকা ইংল্যান্ড। আসন্ন পাঁচ ম্যাচের সিরিজে নিউজিল্যান্ডকে ৫-০ ব্যবধানে হারালে প্রোটিয়াদের টপকে দ্বিতীয়স্থানে উঠে আসবে ইংলিশরা।

এদিকে, গতরাতে শারজাহতে সিরিজের তৃতীয় ওয়ানডেতে জিম্বাবুয়েকে ৬ উইকেটে হারায় আফগানিস্তান। ফলে জিম্বাবুয়েকে টপকে র‌্যাংকিং-এর দশমস্থানে উঠে এসেছে আফগানিস্তান। ১১তমস্থানে নেমে গেছে জিম্বাবুয়ে। পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ জিতলেই দশমস্থান ধরে রাখতে সক্ষম হবে আফগানরা।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫