‌ইসরাইলের বিরুদ্ধে যুদ্ধে লেবাননের পাশে থাকবে ইরাক
‌ইসরাইলের বিরুদ্ধে যুদ্ধে লেবাননের পাশে থাকবে ইরাক

‌ইসরাইলের বিরুদ্ধে যুদ্ধে লেবাননের পাশে থাকবে ইরাক

নয়া দিগন্ত অনলাইন

ইরাকের হারাকাত আন-নুজাবা আন্দোলন ঘোষণা দিয়েছে, ইসরাইল লেবাননের হিজবুল্লাহর ওপর হামলা চালালে তারা হিজবুল্লাহর পাশে থেকে তেল আবিবের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করবে। নুজাবা আন্দোলন এরইমধ্যে সিরিয়া ও ইরাকে উগ্র সন্ত্রাসী গোষ্ঠী দায়েশের বিরুদ্ধে সাহসের সঙ্গে যুদ্ধ করে খ্যাতি অর্জন করেছে।

লেবানন সফরে গিয়ে নুজাবা আন্দোলনের মহাসচিব আকরাম আল-কাবি বলেছেন, গণমাধ্যমে যেভাবে খবর বের হচ্ছে তাতে ইসরাইল যদি হিজবুল্লাহর ওপর আগ্রাসন চালায় তাহলে নিশ্চিতভাবে তার সংগঠন হিজবু্ল্লাহর পাশে দাঁড়াবে।

তিনি বলেন, ইরাক ও সিরিয়ায় দায়েশের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে এরইমধ্যে নুজাবা প্রমাণ করেছে যে, তারা হিজবুল্লাহর নির্ভরযোগ্য মিত্র। ভবিষ্যতেও শক্তিশালী জোট হিবে তৎপরতা অব্যাহত থাকবে। তারা হিজবুল্লাহর হয়ে ইসরাইলের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করবে।

হিজবুল্লাহর কমান্ডার শহীদ ইমাদ মুগনিয়ার শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে নুজাবা মহাসচিব লেবানন সফরে গেছেন। ১০ বছর আগে ইমাদ মুগনিয়া সিরিয়ার রাজধানী দামেস্কে এক বোমা হামলায় শহীদ হন।

 

মধ্যপ্রাচ্যে ইরান-সিরিয়া-ইরাক-লেবানন-ইয়েমেনের নতুন জোট

পারস্য উপসাগরীয় সহযোগিতা পরিষদ ভেঙে পড়ার উপক্রম হয়েছে। পক্ষান্তরে ইরান, সিরিয়া, ইরাক, লেবানন ও ইয়েমেনের সমন্বয়ে মধ্যপ্রাচ্যে প্রকৃত জোট গড়ে উঠেছে। ইরানের বাইরে বিপ্লব ছড়িয়ে দেয়ার মাধ্যমে এ অঞ্চলে তেহরান এতবড় সাফল্য অর্জন করেছে।

সম্প্রতি সংবাদমাধ্যমে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে এসব কথা বলেন ইরানের সর্বোচ্চ নেতার উপদেষ্টা ও সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী আলী আকবর বেলায়েতি।

আলী আকবর বেলায়েতি দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করে বলেন, ইরান মধ্যপ্রাচ্যের সবচেয়ে নিরাপদ দেশ এবং ইরান না থাকলে মধ্যপ্রাচ্যের স্থিতিশীলতা ও নিরাপত্তা বিপন্ন হবে।

সংযুক্ত আরব আমিরাত, সৌদি আরব, কুয়েত, কাতার, বাহরাইন ও ওমান- এই ছয় দেশ বর্তমানে পারস্য উপসাগরীয় সহযোগিতা পরিষদ বা পিজিসিসি'র সদস্য।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.