সিরিয়ায় হামলা করবে ফ্রান্স, ম্যাক্রোঁর হুঁশিয়ারি
সিরিয়ায় হামলা করবে ফ্রান্স, ম্যাক্রোঁর হুঁশিয়ারি

সিরিয়ায় হামলা করবে ফ্রান্স, ম্যাক্রোঁর হুঁশিয়ারি

নয়া দিগন্ত অনলাইন

ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাক্রোঁ হুমকি দিয়ে বলেছেন, সিরিয়া সরকার দেশটিতে রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহার করেছে বলে প্রমাণিত হলে সেদেশের বিরুদ্ধে সামরিক ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মঙ্গলবার এক বক্তৃতায় এ হুঁশিয়ারি দেয়ার পাশাপাশি ম্যাকরন একথাও বলেছেন, প্যারিস এখনক পর্যন্ত সিরিয়া সরকারের পক্ষ থেকে রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহারের কোনো প্রমাণ পায়নি।

এর আগে ফ্রান্সের প্রতিরক্ষামন্ত্রী ফ্লোরেন্স পারলি শুক্রবার এক সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন, দামেস্ক সিরিয়ার জনগণের ওপর রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহার করেছে এমন তথ্য নিশ্চিতকারী কোনো দলিল প্যারিসের হাতে আসেনি।

আমেরিকা ও তার মিত্ররা সিরিয়ার বিভিন্ন রাসায়নিক হামলার জন্য দামেস্ক সরকারকে দায়ী করার চেষ্টা করছে। বিশেষ করে ২০১৭ সালের এপ্রিল মাসে সেদেশের ইদলিব প্রদেশের খান শেইখুন এলাকায় চালানো রাসায়নিক হামলার জন্য সিরিয়া সরকারকে দায়ী করার জোর প্রচেষ্টা চালাচ্ছে ওয়াশিংটন। ওই হামলায় অন্তত ১০০ মানুষ নিহত হয়।

সিরিয়া সরকার শুরু থেকে এ ধরনের অভিযোগ অস্বীকার করে এসেছে। এদিকে বিভিন্ন সূত্রে পাওয়া খবরে জানা গেছে, উগ্র জঙ্গি গোষ্ঠীগুলো সিরিয়া ও ইরাকে বহুবার রাসায়নিক অস্ত্র প্রয়োগ করেছে। পর্যবেক্ষকরা বলছেন, মার্কিন মদদপুষ্ট সন্ত্রাসী গোষ্ঠীগুলোর বিরুদ্ধে সিরিয়া সরকারের উল্লেখযোগ্য বিজয় থেকে বিশ্ব জনমতকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার জন্য বাশার আল-আসাদ সরকারের বিরুদ্ধে রাসায়নিক অস্ত্র প্রয়োগের অভিযোগ আনছে ওয়াশিংটন ও তার মিত্ররা।

রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্প্রতি বলেছে, উগ্র জঙ্গিদেরকে রক্ষা করার লক্ষ্যে দামেস্কের বিরুদ্ধে রাসায়নিক অস্ত্র প্রয়োগের অভিযোগ আনা হচ্ছে।

 

নতুন করে সামরিক হামলায় যুক্তরাষ্ট্রের সহযোগী হবে ফ্রান্স

সিরিয়ার সরকারী অবস্থানের ওপর নতুন করে সামরিক হামলার কথা ভাবছে আমেরিকা। কূটনৈতিক সূত্রগুলো বলছে, এ জাতীয় মার্কিন তৎপরতায় মদদ দিতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে ফ্রান্স। মার্কিন প্রশাসনের কেউ কেউ সিরিয়ায় রাশিয়ার বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নিতে চাইছে।

সিরিয়ায় রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহারের অজুহাতে এ হামলার পরিকল্পনা করা হয়েছে। সিরিয়ায় রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহারের জন্য দামেস্ক সরকারকেই দায়ী করছে হোয়াইট হাউজ। মার্কিন প্রচারণার ধারা পরিবর্তন ঘটেছে। ইদলিবের বিমান ঘাঁটিতে গত এপ্রিলে ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র হামলার আগে যে ধরণের প্রচারণা চালানো হয়েছে সে ধরণের প্রচারণা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র গ্রহণ করছে।

বুধবার রাতে মার্কিন নেতৃত্বাধীন জোটের বাহিনী দামেস্কপন্থী বাহিনীর বিরুদ্ধে বিমান হামলা চালানোর পর থেকে এ পদক্ষেপ নেয়ার কথা ভাবা হয়। সিরিয়ার দেয়ার আজ-জোরে এ হামলা চালানো হয়েছিল। হামলায় সিরিয়ার সরকারি বাহিনীর শতাধিক নিহত হয়েছে বলে স্বীকার করেছে মার্কিন এক সেনা কর্মকর্তা।

মার্কিন জোটের এ হামলাকে যুদ্ধ অপরাধ হিসেবে অভিহিত করেছে সিরিয় সরকার। দামেস্ক সরকার আরো বলেছে, সন্ত্রাসবাদ বিরোধী যুদ্ধের অজুহাতে সিরিয় ভূখণ্ডে মার্কিন অবৈধ ঘাটি স্থাপনই এ জাতীয় হামলার লক্ষ্য।


মিডল ইস্ট আই

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.