ঢাকা, বুধবার,২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

অপরাধ

নাতনীকে বিয়ে না দেয়ায় নানীকে খুন

নিজস্ব প্রতিবেদক

১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮,মঙ্গলবার, ২০:৩৫


প্রিন্ট
নাতনীকে বিয়ে না দেয়ায় নানীকে খুন

নাতনীকে বিয়ে না দেয়ায় নানীকে খুন

রাজধানীর হাজারীবাগে নাতনীকে বিয়ে না দেয়ায় নানীকে কুপিয়ে হত্যা করেছে বখাটে প্রেমিক। নিহতের নাম রিজিয়া বেগম (৬৫)। সোমবার রাতে হাজারীবাগের মধুবাজার এলাকার হাজী আক্তার হোসেন রোডের ১৩৭/৩০ নম্বর বাসায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত রিজিয়া শরিয়ৎপুর জেলার ডামুড্ডা থানার ধুপখোলা গ্রামের মৃত কলম আলীর স্ত্রী। হাজী আক্তার হোসেন রোডের ওই বাসায় বাক প্রতিবন্ধী ছেলে হান্নান, মেয়ে মায়া বেগম ও তার মেয়ে (মায়ার মেয়ে) শিলাকে নিয়ে থাকতেন। রিজিয়া এলাকায় ছুটা বুয়ার কাজ করতেন।

পুলিশ ও পরিবার সূত্র জানায়, মায়া বেগমের মেয়ে শিলা স্থানীয় একটি স্কুলের ৮ম শ্রেণীর ছাত্রী। স্কুলে আশা যাওয়ার পথে পরিচয় হয় সমীর মুন্সি নামে এক যুবকের সঙ্গে। তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এক পর্যায়ে সমীর শিলাকে বিয়ে করার প্রস্তাব দেয়। কিন্তু সমীর বখাটে হওয়ায় শিলার মা মায়া বেগম রাজি হননি। সমীর কৌশল পাল্টে শিলার নানী রিজিয়া বেগমের সঙ্গে ভালো সম্পর্ক গড়ে তোলেন। এক পর্যায়ে রিজিয়া বেগমের বাসায় থাকা-খাওয়া শুরু করে সমীর। সুযোগ বুঝে রিজিয়া বেগমের কাছে শিলাকে বিয়ের প্রস্তাবও দেয় সে। কিন্তু মায়া বেগমের মতো রাজি হননি রিজিয়াও। এক পর্যায়ে তিনি সমীরকে তার বাসায় আসতে নিষেধ করেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে সমীর।

এরপর প্রতিদিনের মতো সোমবার রাতে কাজ শেষ করে বাসায় ফেরেন রিজিয়া। রাত ১০টার পরে ছেলেকে নিয়ে ঘুমিয়ে পড়েন। মাঝ রাতে তার ছেলে টয়লেটে গেলে সমীর রুমে ঢুকে রিজিয়ার বুকে ও পেটে উপুর্যপরি কুপিয়ে পালিয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় তার। প্রতিবন্ধী ছেলে টয়লেট থেকে এসে মায়ের নিথর দেহ দেখে বুক চাপড়াতে থাকে। পরে খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য স্যার সলিমুল্লাহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

হাজারীবাগ থানার ওসি মীর আলিমুজ্জামান জানান, এ ঘটনায় নিহতের মেয়ে মায়া বেগম একটি মামলা করেছেন। ঘাতক সমীর মুন্সির গ্রামের বাড়ি কুমিল্লায় বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে। তাকে গ্রেফতার করতে অভিযান চালানো হচ্ছে।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫