ঢাকা, শনিবার,২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

নিত্যদিন

জা য়া রে র রূ প ক থা

ভুতুড়ে প্রাণীটা কে রে

হাসান হাফিজ

১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮,মঙ্গলবার, ০০:০০


প্রিন্ট

(গত দিনের পর)

এইবার সত্যি সত্যি ভয় পেয়ে যায় এনরি। পানি নেয়ার কথা ভুলে ভয়ে ছুট দেয়। দ্রুতপায়ে ফিরে যায়। বাব্বাহ, আর একটু হলেই প্রাণটা গিয়েছিল। কাজ নেই বাপু পানি নিয়ে চিন্তাভাবনা করে। যা ঘটার ঘটবে। কোনোমতেই ওই অভিশপ্ত কুয়োর ধারেকাছে যাওয়া যাবে না। গেলেই নির্ঘাত মরণ। কেউ যদি তাকে কাপুরুষ বলে বলুক। সেই অপবাদ গায়ে না মাখলেই হলো।
পানি ছাড়া চলবে কেমন করে? এই সঙ্কটের সমাধানে এবার এগিয়ে এলো সিংহ। বনের রাজা। নাম তার লুকা। হুঙ্কার ছেড়ে বলল সিংহ, ব্যাপারটা বড্ড গোলমেলে ঠেকেছে আমার কাছে। কী এমন প্রাণী থাকে সেই কুয়োর ভেতর, যে সব্বাইকে ভয় দেখায়? এর একটা হেস্তনেস্ত করা লাগে। নিজের চোখে দেখতে হবে আমাকে। আমি এবার নিজেই যাবো। কিছুতেই হার মানব না আমি।
শেষমেশ হার মানতেই হলো লুকাকে। পশুরাজ হলে কী, জানের মায়া তার আছে নিশ্চয়ই। কুয়োর প্রাণীটার কণ্ঠস্বর যে এত ভয় ধরানো, তার ধারণা ছিল না। কোনো মতে পড়িমরি করে দৌড়ে পালিয়ে এলো পশুরাজ সিংহ। পানি আনার কথা বেমালুম ভুলেই গেল ভয় পেয়ে।
(চলবে)

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫