ঢাকা, বুধবার,২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

বিবিধ

‘সুপারকাউ’ প্রকল্পে বিনিয়োগ করছেন বিল গেটস

আহমেদ ইফতেখার

০৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮,শনিবার, ১৮:৪৬


প্রিন্ট
‘সুপারকাউ’ প্রকল্পে বিনিয়োগ করছেন বিল গেটস

‘সুপারকাউ’ প্রকল্পে বিনিয়োগ করছেন বিল গেটস

ব্রিটিশ জাতের গরুর জিন নিয়ে তা শক্তিশালী আফ্রিকান জাতের গরুর ডিএনএতে সঞ্চার করে নতুন উন্নত এই জাত উৎপাদন করতে চান মাইক্রোসফটের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ও ধনকুব বিল গেটস। এই জাতের গরু যেকোনো জায়গায় টিকে থাকতে পারবে বলে তিনি আশা করছেন। বিল গেটসের তৈরি করা দাতব্য সংস্থা বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশনের অন্যতম লক্ষ্য হচ্ছে গেটসের প্রতিষ্ঠিত সফটওয়্যার জায়ান্ট মাইক্রোসফটে থাকা তার বেশির ভাগ সম্পদ উন্নয়নশীল বিশ্বের দারিদ্র্য দূর করতে বিতরণ করা।

এডিনবার্গের বিজ্ঞানীরা গ্রীষ্মপ্রধান অঞ্চলগুলোর গরুগুলোর জীবন বাঁচাতে ভ্যাকসিন তৈরিতে সফটওয়্যার ব্যবহার করবেন। এ গবেষণার জন্য আংশিক তহবিল জোগাচ্ছে ব্রিটিশ সরকারের সাহায্য সংস্থা- ডিপার্টমেন্ট অব ইন্টারন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট। যুক্তরাজ্যের হলস্টেইন-ফ্রিসিয়ান জাতের গরু দিনে গড়ে প্রায় ১৯ লিটার দুধ দেয়। আর একই জাতের আফ্রিকান গরু দেয় মাত্র ১.৬ লিটার। কিন্তু আফ্রিকান গরুগুলো অত্যন্ত গরম আবহাওয়ায় অনেক কম খেয়েও বেঁচে থাকতে পারে। বিল গেটসের তৈরি করা দাতব্য সংস্থা বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশনের অন্যতম লক্ষ্য হচ্ছে গেটসের প্রতিষ্ঠিত সফটওয়্যার জায়ান্ট মাইক্রোসফটে থাকা তার বেশির ভাগ সম্পদ উন্নয়নশীল বিশ্বের দারিদ্র্য দূর করতে বিতরণ করা।

এডিনবার্গের বিজ্ঞানীরা গ্রীষ্মপ্রধান অঞ্চলগুলোর গরুগুলোর জীবন বাঁচাতে ভ্যাকসিন তৈরিতে সফটওয়্যার ব্যবহার করবেন। এ গবেষণার জন্য আংশিক তহবিল জোগাচ্ছে ব্রিটিশ সরকারের সাহায্য সংস্থা- ডিপার্টমেন্ট অব ইন্টারন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট। একদম গরিব দেশগুলোতে শত-কোটিরও বেশি মানুষের জন্য কৃষি আর প্রাণিসম্পদ দারিদ্র্য দূর করার মাধ্যম। দুধ উৎপাদন বাড়ানোর পরিবেশগত হুমকি নিয়েও অবগত গেটস। কিন্তু তিনি বলেন, ‘এটি এমন একটি বিষয় যে অনেক মানুষ তাদের পুষ্টি আর আয়ের জন্য গরুর ওপর নির্ভর করে।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫