ঢাকা, শনিবার,২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

সংগঠন

নবম ওয়েজবোর্ড পুনর্গঠনের দাবি জানিয়েছে বিএফইউজে-ডিইউজে

প্রেস বিজ্ঞপ্তি

৩০ জানুয়ারি ২০১৮,মঙ্গলবার, ১৮:৩৯


প্রিন্ট
নবম ওয়েজবোর্ড পুনর্গঠনের দাবি জানিয়েছে বিএফইউজে-ডিইউজে

নবম ওয়েজবোর্ড পুনর্গঠনের দাবি জানিয়েছে বিএফইউজে-ডিইউজে

বিতর্কিত বিচারপতি নিজামুল হকের নেতৃত্বে এবং সরকার ও গণমাধ্যম মালিকদের তল্পিবাহক সাংবাদিক ইউনিয়নের প্রতিনিধি নিয়ে গঠিত নবম ওয়েজ বোর্ড প্রত্যাখ্যান করেছেন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন- বিএফইউজে’র সভাপতি শওকত মাহমুদ ও মহাসচিব এম আবদুল্লাহ এবং ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি আবদুল হাই শিকদার ও সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম প্রধান। 

এক বিবৃতিতে সাংবাদিক নেতারা বাংলাদেশের ইতিহাসে প্রথম বারের মত বৈধ ও রেজিস্টার্ড সাংবাদিক ইউনিয়নের প্রতিনিধিহীন ওয়েজ বোর্ড গঠন করায় বিস্ময় প্রকাশ করে সরকারের একচোখা অবিবেচনাপ্রসূত কান্ডের তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়েছেন।

নেতৃবৃন্দ বলেন, সাংবাদিক সমাজের ন্যায়সংগত দাবি ছিল নবম ওয়েজবোর্ড গঠন। এ দাবিতে দীর্ঘদিন সাংবাদিক ইউনিয়ন আন্দোলন-সংগ্রাম করছে। দীর্ঘ প্রায় দু’বছর নানা টালবাহানার পর সোমবার নবম ওয়েজ বোর্ডের নামে যা গঠিত হয়েছে তা নজীরবিহীন। এ যাবৎকালের প্রতিটি ওয়েজবোর্ডে সাংবাদিক সমাজের স্বার্থ রক্ষায় প্রতিনিধিত্ব করেছে সরকারেরই শ্রম দফতরের নিবন্ধিত সাংবাদিক ইউনিয়নের প্রতিনিধিগণ। সাংবাদিক ইউনিয়ন বিভক্ত হওয়ার পরও সকল সরকারের আমলেই প্রতিনিধি চাওয়া হয়েছে রেজিস্টার্ড ইউনিয়নের কাছে। সাংবাদিক, শ্রমিক-কর্মচারি ঐক্য পরিষদের বৈঠকের মাধ্যমে প্রতিনিধি মনোনীত করে তা তথ্য মন্ত্রণালয়ে প্রেরণের রেওয়াজ সুবিদিত। এতে সব মত পথের সাংবাদিক প্রতিনিধি অন্তভর্’ক্ত করা হতো। অষ্টম ওয়েজবোর্ড পর্যন্ত তাই হয়েছে। কিন্তু বর্তমান সরকারের তথ্য মন্ত্রণালয় আইন-কানুন, বিধি-বিধান এবং দীর্ঘ দিনের প্রচলিত ও অনুসৃত নীতি লংঘন করে সম্পূর্ণ এক তরফাভাবে সরকার সমর্থক আইনগতভাবে বৈধতাহীন সাংবাদিক ইউনিয়নের প্রতিনিধি নিয়ে ওয়েজবোর্ড গঠন করেছে। 

সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ বলেন, সাংবাদিকদের প্রতিনিধি হিসেবে যাদের অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে তাদের সরকারের প্রতি প্রশ্নাতীত আনুগত্য ও গণমাধ্যম মালিকদের সঙ্গে বিশেষ সখ্যতার কারণে সংবাদকর্মীদের স্বার্থ রক্ষা করা সম্ভব হবে না। ফলে নবম ওয়েজ বোর্ডে সাংবাদিকদের ন্যায্য অধিকার সুনিশ্চিত করতে হলে বৈধ সাংবাদিক ইউনিয়নের প্রতিনিধি নিয়ে ওয়েজ বোর্ড অবিলম্বে পুনর্গঠন করতে হবে।

তাছাড়া ওয়েজবোর্ডর চেয়ারম্যান হিসেবে যাকে নিযুক্ত করা হয়েছে তিনি আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের বিচারক হিসেবে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে চাঞ্চল্য সৃষ্টিকারি স্কাইপি কেলেঙ্কারির দায় নিয়ে পদত্যাগ করতে বাধ্য হন এবং চরমভাবে বিতর্কিত হয়ে পড়েন। এমন একজন বিতর্কিত ব্যক্তিকে সাংবাদিকদের ওয়েজ বোর্ডের মত একটি গরুত্বপূর্ণ ও সংবেদনশীল বিষয়ে নিযুক্ত করা কোনভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়।

সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে নবম ওয়েজবোর্ড পুনর্গঠনের দাবি জানান।

 

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫