শ্লীলতাহানির শিকার বলিউড নায়িকা জিনাত আমান
শ্লীলতাহানির শিকার বলিউড নায়িকা জিনাত আমান

শ্লীলতাহানির শিকার বলিউড নায়িকা জিনাত আমান

নয়া দিগন্ত অনলাইন

গত কয়েক মাস ধরেই নাকি তাকে অনুসরণ করছেন একজন। শুধু তাই নয়, মোবাইলে বার বার মেসেজ, এমনকি নানা ধরনের ভিডিও ক্লিপও আসছিল! শেষ পর্যন্ত পুলিশের কাছে যেতে বাধ্য হলেন বলিউড অভিনেত্রী জিনাত আমন। তার দাবি, পূর্বপরিচিত ওই ব্যক্তি তার শ্লীলতাহানিও করেছেন। সোমবার জুহু থানায় অমর খান্না নামে ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন ৬৬ বছরের অভিনেত্রী।

মুম্বই লাইভের খবর অনুযায়ী, ডিসিপি পরমজিত্ সিংহ দাহিয়া জানিয়েছেন, সরফরাজ ওরফে অমর খান্না পেশায় ব্যবসায়ী। বহুদিন ধরেই জিনাত ও তার পরিবারের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক রয়েছে অমরের। কিছুদিন আগে দু’জনের সম্পর্কের অবনতি হয়। দুই পরিবারের মধ্যে কথাও বন্ধ হয়ে যায়। কিন্তু, জিনাতের মোবাইলে মেসেজ, ভিডিও ক্লিপস পাঠিয়ে বিরক্ত করতে থাকেন অমর। বার বার অভিনেত্রীকে দেখা করার জন্য চাপও দিচ্ছিলেন তিনি। যদিও কোনোবারই দেখা করতে রাজি হননি জিনাত।

এর আগেও নাকি তিন বার, জিনাতের অ্যাপার্টমেন্টের সিকিউরিটি গার্ডের সঙ্গে দুর্ব্যবহারের অভিযোগ উঠেছে অমরের বিরুদ্ধে। এই পরিস্থিতিতে জুহু থানায় গিয়ে সোমবার রাতে অভিযোগ দায়ের করেন জিনাত। অমরের বিরুদ্ধে তাকে হুমকি এবং শ্লীলতাহানির অভিযোগ করেছেন প্রাক্তন নায়িকা। অভিনেত্রীর অভিযোগের ভিত্তিতে ৩৫৪ (ডি) ও ৫০৯ ধারায় অনুসরণ এবং শ্লীলতাহানির মামলা রুজু করেছে পুলিশ।

তদন্তকারীরা জানিয়েছেন, মামলা দায়েরের পর থেকেই পলাতক অভিযুক্ত। তদন্তের স্বার্থে, কী কারণে তাদের সম্পর্কের অবনতি হয়েছিল, তা-ও জানতে চায় পুলিশ।

১৯৮৫ সালে অভিনেতা মাজহার খানকে বিয়ে করেছিলেন জিনাত। পরে অভিনেতা সঞ্জয় খানের সঙ্গেও বিয়ে হয়েছিল। জিনাতের দুই স্বামীই মারা গেছেন। তার দুই ছেলে রয়েছে, আজান ও জাহান।

 

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.