ঢাকা, বুধবার,২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

ফ্যাশন

চুলের পরিচর্যা করবেন যেভাবে

ফাহমিদা জাবীন

২২ জানুয়ারি ২০১৮,সোমবার, ১৫:৫৬


প্রিন্ট
চুলের পরিচর্যা করবেন যেভাবে

চুলের পরিচর্যা করবেন যেভাবে

চুল মানুষের সৌন্দর্যের অন্যতম অংশ, একরাশ ঝলমলে চুল কার না পছন্দ। কিন্তু কখনো কখনো এই চুলই হয়ে ওঠে সবচেয়ে দুশ্চিন্তার কারণ। আজকাল চুল ঝরে যাচ্ছে এ অভিযোগ অনেকেরই। প্রতিদিন পঞ্চাশ-এক শ’ চুল পড়ে যাওয়া স্বাভাবিক ঘটনা। কিন্তু খুব বেশি চুল ঝরে গেলে তখন অবশ্যই ব্যবস্থা নিতে হবে। সাধারণত কোনো অসুখ বা কোনো বিশেষ ওষুধের প্রভাবের কারণে চুল পড়ে যায়। সেজন্য অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নেয়া দরকার। পুষ্টিকর খাবার নিয়ম করে খাওয়ার চেষ্টা করুন। কারণ চুলের স্বাস্থ্য ভাল রাখার জন্য প্রোটিন খুবই জরুরি।

চুলের স্বাস্থ্যের জন্য পরিচ্ছন্নতা একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। তাই চুল ও মাথার ত্বক নিয়মিত পরিষ্কার রাখতে হবে। সময় ধরে নয় যখনই মনে করবেন চুল ময়লা হয়ে গেছে, তখনই চুলে শ্যাম্পু করবেন।
সপ্তাহে এক দিন চুলে হট অয়েল ট্রিটমেন্ট করতে পারলে ভালো। চুলকে মৃসণ ও ঝলমলে করতে হট অয়েল ট্রিটমেন্টের জুড়ি নেই। হট অয়েল ট্রিটমেন্ট করতে হলে প্রথমে নারকেল তেল অল্প গরম করে পুরো স্কাল্পে ম্যাসাজ করতে হবে। এবার উষ্ণ পানিতে তোয়ালে ভিজিয়ে পানি চেপে নিন। গরম তোয়ালেটা সারা মাথায় জড়িয়ে রাখুন। ঠাণ্ডা হলে আবার ভিজিয়ে একই পদ্ধতিতে করুন। এক ঘণ্টা পর শ্যাম্পু করুন। চুল পড়া রোধ করতে একটি প্যাক ব্যবহার করতে পারেন। আধা কাপ মেহেদি বাটা, ১টি ডিম, ১০০ গ্রাম টকদই, ১ চা চামচ আমলকী বাটা, ১ চা চামচ শিকাকাই মিশিয়ে এই মিশ্রণ মাথায় লাগিয়ে নিন। ২০-২৫ মিনিট পর চুল ধুয়ে ফেলুন।
সব ধরনের চুলের জন্য ১টি ডিম ও ২ টেবিল চামচ টক দই ভালো করে ফেটিয়ে মাথায় দিয়ে রাখুন। ঘণ্টাখানেক পর ধুয়ে ফেলুন। চুল খুবই তেলতেলে হলে কেবল ডিমটা লাগাতে পারেন। সেক্ষেত্রে দই বাদ দেবেন।

চায়ের লিকারের সাথে অল্প লেবুর রস মিশিয়ে এটিকে কন্ডিশনার হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন।
চুলের ডগা ফেটে গেলে। ফাটা অংশ কেটে ফেলতে হবে। কারণ, চুল ফেটে গেলে বুঝতে হবে চুলের যা ক্ষতি হওয়ার হয়ে গেছে। বিউটি স্যালুনগুলোতে সব সময় যাওয়া সম্ভব না হলে ঘরে বসেই চুলের যত্নের প্রতি সময় দিতে হবে। নিয়মিত পরিচর্যায় চুলের হারানো জৌলুশ আবার ফিরে পাবেন।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫