ঢাকা, শুক্রবার,২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

অনলাইন জগৎ

হোয়াটসঅ্যাপের প্রতিদ্বন্দ্বী ভারতের হাইক

আহমেদ ইফতেখার

২১ জানুয়ারি ২০১৮,রবিবার, ১৮:০৯


প্রিন্ট

বিশ্বজুড়ে বার্তা আদান-প্রদানের জনপ্রিয় মাধ্যম হোয়াটসঅ্যাপ। তবে হোয়াটসঅ্যাপকে টেক্কা দিতে আগ্রাসী হয়ে উঠছে হাইক। হোয়াটসঅ্যাপের প্রতিদ্বন্দ্বী ভারতের হাইক নিয়ে এসেছে টোটাল নামে নতুন একটি অ্যান্ড্রয়েড সংস্করণ। এর মাধ্যমে বার্তা আদান-প্রদানসহ তথ্য সংগ্রহ এমনকি বিভিন্ন বিলও প্রদান করা যাবে কোনো ধরনের ইন্টারনেট সংযোগ ছাড়াই। মূলত যেসব মানুষ এখনো ইন্টারনেটের আওতার বাইরে, তাদের নিজেদের সেবার অন্তর্ভুক্ত করতে চাইছে হাইক। 

আগামী মার্চ মাস নাগাদ টোটাল সফটওয়্যারযুক্ত চারটি ফোনসেট আনার পরিকল্পনা করছে হাইক। এরমধ্য দিয়ে ইন্টারনেট ছাড়া বার্তা পাঠানোসহ পত্রিকা পড়া, বাসের টিকিট কেনা ও ক্রিকেটের স্কোর দেখার মতো কাজও করা যাবে। আর এক্ষেত্রে টোটাল এমন একটি প্রযুক্তি ব্যবহার করছে, যেটি সাধারণ তারহীন নেটওয়ার্কের থেকে ভিন্নভাবে কাজ করে। হাইক ভারতের ফোন উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান ইনটেক্স টেকনোলজিস ইন্ডিয়া লিমিটেড ও কারবন মোবাইলসের সাথে একত্রিত হয়ে নতুন স্মার্টফোন আনার পরিকল্পনা করছে। এসব স্মার্টফোনের দাম হবে সাড়ে তিন হাজার থেকে পাঁচ হাজার রুপির মধ্যে। ব্যবহারকারীরা নতুন এ ডিভাইস চালু করে একটি ফোন নম্বরের মাধ্যমে হাইকের সেবা উপভোগ করতে পারবেন। নতুন এই উদ্যোগ ভারতের এক শ’ কোটিরও বেশি মানুষকে মোবাইল সেবার আওতায় আনতে সক্ষম হবে। এরমধ্য দিয়ে তারহীন নেটওয়ার্কের সাথে সংযুক্ত হতে খরচ হবে প্রচলিত যেকোনো মাধ্যমের তুলনায় কম।

হাইকের এরই মধ্যে ১০ কোটির বেশি ব্যবহারকারী রয়েছে। হাইকের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী কবীন ভারতী মিত্তাল জানিয়েছেন, ভারতে ৪০ কোটি স্মার্টফোন ব্যবহারকারী রয়েছে। কিন্তু এদের মধ্যে সক্রিয়ভাবে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা অর্ধেকেরও কম। আমরা এই পার্থক্য পুরোপুরি কমিয়ে আনতে চাই। আর এক্ষেত্রে ইন্টারনেটকে তাদের জন্য আমরা খুবই সহজ করে দিচ্ছি। এসব মানুষের জন্য ইন্টারনেটকে সহজ-সরল করতে আমরা এমন কিছু করছি, যা আমূল পরিবর্তন নিয়ে আসবে। 

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫