ঢাকা, বুধবার,২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

ক্রিকেট

উত্তাপ ছড়াচ্ছে বাংলাদেশ শ্রীলঙ্কা ম্যাচ

মাসউদুর রহমান

১৯ জানুয়ারি ২০১৮,শুক্রবার, ০৬:১৩ | আপডেট: ১৯ জানুয়ারি ২০১৮,শুক্রবার, ০৬:২১


প্রিন্ট
উত্তাপ ছড়াচ্ছে বাংলাদেশ শ্রীলঙ্কা ম্যাচ

উত্তাপ ছড়াচ্ছে বাংলাদেশ শ্রীলঙ্কা ম্যাচ

ক্রিকেট কেন, যেকোনো খেলায় বডি ল্যাঙ্গুয়েজ ফ্যাক্টর। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে আজকের ম্যাচ সামনে রেখে গতকাল মাশরাফিদের প্র্যাকটিসে ছিল অন্য আমেজ। যেখানে ছিল না কোনো টেনশন, ভয় বা জড়তা। খেলোয়াড়দের বডি ল্যাঙ্গুয়েজই বলে দিচ্ছিল লঙ্কাকে থোড়াই পাত্তা দিচ্ছে তারা এ ম্যাচে। হবেই না কেন! এ শ্রীলঙ্কাকে গত মার্চে শ্রীলঙ্কার মাটিতে টেস্ট, ওয়ানডে ও টি-২০। প্রতিটি সিরিজে তাদের হারিয়েছে এবং সিরিজ ড্র করে এসেছে বাংলাদেশ। এবার খেলা নিজের দেশে। এমনিতেই ইদানীং বিশ্ব ক্রিকেটে একটা কথা চালু রয়েছে- ঘরের মাটিতে কাউকেই ছাড় দেয় না বাংলাদেশ। ইংল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা, পাকিস্তান, ভারত, অস্ট্রেলিয়া, ওয়েস্ট ইন্ডিজ- কাকে ছাড় দিয়েছে? কোন দলটিকে না হারিয়ে ছেড়েছে? সেই মাশরাফি, সাকিব, তামিম, মুস্তাফিজরাই তো আজ খেলবেন। ফলে জড়তা আসবেই বা না কেন?

সর্বশেষ দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে বাজে কিছু সময় কাটানোর পর দলে কিছু পরিবর্তন নিয়ে খেলছেন তারা এ সিরিজ। দলটি যে পারফেক্ট, তার প্রমাণও দিয়েছে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে। যে জিম্বাবুয়ে আজকের প্রতিপক্ষ শ্রীলঙ্কাকে হারিয়েছে, সে জিম্বাবুয়েকে প্রতিটি ডিপার্টমেন্টে এক রকম বিধ্বস্ত করেই জিতেছিল ম্যাচ।

আজ ওই কাজগুলো ঠিক রেখে খেললেই তো হলো। বাংলাদেশ আজ শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে কী করবে এ নিয়ে অনেক বিশ্লেষণ। কারণ লড়াইটা তো হাতুরাসিংহের বিপক্ষে মাশরাফিদের। ফলে এমন এক ম্যাচের উত্তাপ ক্রমেই বাড়ছে ক্রিকেট পাড়ায়।

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে আরেকটা কারণেও অ্যাডভান্টেজ বাংলাদেশের। লঙ্কান দলে কিছুটা সমস্যা যাচ্ছে। ২০১৭ সাল খুবই বাজে কেটেছে তাদের। বলা হয় শ্রীলঙ্কার ক্রিকেটের ইতিহাসে সবচেয়ে বাজে রেকর্ড। তা থেকে উত্তরণের জন্য কোচিং স্টাফে পরিবর্তন। অধিনায়কেও পরিবর্তন এনেছে তারা দলের সাথে। কিন্তু নতুন বছরের সূচনায় জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে হারতেই হয়েছে।

এ ম্যাচে অধিনায়ক অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস ইনজুরির জন্য বাইরে থাকার কথা। যদি তাই হয় শেষ পর্যন্ত এটাও তাদের জন্য একটা দুঃসংবাদ। যদিও টিম শ্রীলঙ্কার মেসেজ অন্য রকম। পেছনের দুর্বলতা তারা মোটেও মনে রাখতে চায় না। এ ম্যাচে ঘুরে দাঁড়ানোই তাদের আসল লক্ষ্য।

এটাও ঠিক একটা দল বাজে সময়ের মধ্য দিয়ে গেলে, সেখানে অনেক সমস্যা এসে উপনীত হয়। অব্যাহত জয় এসব থেকে মুক্ত রাখতে পারে। হেড কোচ হাতুরাসিংহের সম্ভবত ওই মন্ত্রই থাকবে এ ম্যাচে। মাশরাফি যেমন বলেছেন, গত বেশ কিছু দিন তো আমরা হাতুরাসিংহের প্লানে খেলেছি। এখন ওগুলোতে নেই। আমাদের প্লানটা আমরাই সাজিয়ে খেলব।’ দলে বেশ ক’জন অভিজ্ঞ খেলোয়াড় তাদের। উপল থারাঙ্গা, কুশল পেরেরা, দিনেশ চান্দিমাল, কুশল মেন্ডিস, তিসারা পেরেরা প্রমুখ। যেকোনো পরিস্থিতি মোকাবেলার জন্য যথেষ্ট তারা।

মাশরাফি এটাও বলেছেন। এ ব্যাপারে কঠোর সতর্ক থাকবেন তারা। বাংলাদেশ দলেও দীর্ঘদিন পর ফেরা এনামুল হক বিজয়, মুস্তাফিজ, রুবেল হোসেনরা যাতে ভালো পারফরম্যান্স করে তাই মূল লক্ষ্য। মাশরাফি, সাকিব, তামিম ইকবাল, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, মুশফিকুর রহীম, সাব্বির রহমানরা আজ প্রত্যাশিত পারফরম্যান্স করবেন এটাই টিম বাংলাদেশের চাওয়া। তবে এটাও ঠিক শ্রীলঙ্কা দলে যেমন হাতুরাসিংহে প্রধান কোচ।

তেমনি বাংলাদেশ দলেও একজন রয়েছেন খালেদ মাহমুদ সুজন। খেলোয়াড়দের কাছ থেকে উজ্জীবিত পারফরম্যান্স বের করে আনার ব্যাপারে অতুলনীয় তিনি। বিসিবির পরিচালক ও সাবেক কোচও তিনি। দলের সাথে যুক্ত টেকনিক্যাল ম্যানেজার হিসেবে। তবে দলের সবার প্রিয় এ ক্রিকেটারের মন্ত্রটাও ক্রিকেটারদের আজ উৎসাহিত করবে জয়ের ব্যাপারে। কারণ খেলা শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে হলেও মূল টার্গেট কিন্তু হাতুরাসিংহে। হঠাৎ না বলে চাকরি ছেড়ে চলে গিয়েছিলেন

তিনি দক্ষিণ আফ্রিকায় বাজে রেজাল্টের পর। এবং দায়িত্ব নেন এ শ্রীলঙ্কার। সে অনাকাক্সিত মুহূর্তের সব দায় এসে পড়েছিল ক্রিকেটারদের ওপর। মাশরাফি-সাকিবরা কি এত তাড়াতাড়ি ভুলে যাবেন? হয়তো না। মিরপুরে আজো খেলা শুরু হবে দুপুর ১২টায়।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫