হাথুরুসিংহের বিরুদ্ধে ভয়হীন ক্রিকেট খেলবে বাংলাদেশ
হাথুরুসিংহের বিরুদ্ধে ভয়হীন ক্রিকেট খেলবে বাংলাদেশ

হাথুরুসিংহের বিরুদ্ধে ভয়হীন ক্রিকেট খেলবে বাংলাদেশ

বাসস

গত অক্টোবরে দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের পরই বাংলাদেশের কোচের পদ ছেড়ে দেন চন্ডিকা হাথুরুসিংহে। নিজ দেশ শ্রীলঙ্কার কোচের দায়িত্ব নেন তিনি। তাই বাংলাদেশের মাটিতে ত্রিদেশীয় সিরিজটি হাথুরুসিংহের প্রথম অ্যাসাইনমেন্ট। ইতোমধ্যে জিম্বাবুয়ের কাছে হেরে নিজ দায়িত্ব শুরু করেন হাথুরু। তবে শুক্রবার ত্রিদেশীয় ওয়ানডে সিরিজের তৃতীয় ম্যাচে হাথুরুর সাবেক দল বাংলাদেশের মুখোমুখি হচ্ছে শ্রীলঙ্কা। তাই স্বাভাবিকভাবে বাংলাদেশের বিপক্ষ হিসেবে হাথুরুসিংহকেই বলা হচ্ছে।

তবে এসব নিয়ে ভাবতে রাজি নন বাংলাদেশের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। এমনকি বাংলাদেশ দলের কোচ থাকা অবস্থায় হাথুরুসিংহের করা পরিকল্পনাগুলোও দল ভুলে গেছে বলে জানান মাশরাফি, ‘পেশাদার ক্রিকেটে এই ধরনের ঘটনা এটাই প্রথম না। সম্প্রতি যে কোচ ছিল তার মুখোমুখি হওয়া এই প্রথম না। আর সত্যি বলতে, আমরা এটা অনেক আগেই পেছনে ফেলে এসেছি। যখন তিনি চলে গেছেন তার পরিকল্পনা আমরা পুরোটাই ভুলে গেছি। এখন যারা কোচ আছেন, তাদের সাথে আমরা মানিয়ে নেয়ার চেষ্টা করছি। এখানে তার ব্যাপারটা নিয়ে আর ভাবার কোন অবকাশই নেই।’

তারপরও হাথুরুসিংহের প্রসঙ্গ চলে আসায় বাড়তি চাপ পড়ছে কি-না এমন প্রশ্নের জবাবে মাশরাফি বলেন, ‘আমাদের এ ম্যাচ খেলতে হবে, জিততে হবে। এর বাইওে অন্য কিছু চিন্তা করার সুযোগ নেই। চিন্তা করলে আরও বেশি চাপ আসে। আমার কাছে মনে হয় খেলার দিকেই সবার মনোযোগ থাকে। সেটাই আছে। আমাদের লক্ষ্য ভালো ক্রিকেট খেলা। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে যেভাবে খেলেছি, সেভাবেই খেলতে চাই।’

শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে বাংলাদেশের সাথে প্রথম দেখায় হাথুরুসিংহেকে চমকে দেয়ার কোনো পরিকল্পনা দলের নেই বলে জানান মাশরাফি, ‘আলাদা করে চমক দেয়ার কিছু নেই। আমরা যেভাবে খেলতাম, সেভাবেই খেলব। হাথুরুসিংহে থাকতেও এখানে এসে বলতাম আমরা আত্মবিশ্বাস ও স্বাধীনতা নিয়ে ক্রিকেট খেলতে চাই। আপনি যদি দেখেন প্রায় তিন-আড়াই বছর পর বিজয় দলে এসে যেভাবে ক্রিকেট খেলেছে, আমরা ঠিক এটাই চাই। ভয়হীন ক্রিকেট খেলুক।’

২০১৪ সালের মে মাসে বাংলাদেশ দলের কোচের দায়িত্ব নেন হাথুরুসিংহে। এরপর তার অধীনে ১৭ টেস্টে ৫ জয় ৮ হার ৪ ড্র, ৩৭ ওয়ানডেতে ২০ জয় ১৩ হার এবং ২৫ টুয়েন্টি টুয়েন্টি ম্যাচে ৯ জয় ১১ হারের স্বাদ নেয় বাংলাদেশ। তাই বাংলাদেশের আদ্যপান্থ সবই জানা হাথুরুসিংহের। তাই হাথুরুসিংহে বড় চ্যালেঞ্জ হিসেবেই থাকবেন বাংলাদেশের জন্য। এ ব্যাপারে মাশরাফি বলেন, ‘চ্যালেঞ্জ আসলে সব জায়গাতেই থাকে। হাথুরুসিংহে যখন এখানে ছিল, তখন তার ওপরে এক রকম চ্যালেঞ্জ ছিল। হয়তো দক্ষিণ আফ্রিকায় আমরা পুরোটা হেরে আসার পর চ্যালেঞ্জটা আরও বেশি হতো। আরও উপভোগ্য হতো।

তিনি থাকেননি, শ্রীলঙ্কাকে বেছে নিয়েছেন। এখন তার আরেক রকম চ্যালেঞ্জ। আমাদেরও চ্যালেঞ্জ, যখন ছিল কথা তো সব আমরাই শুনেছি। চ্যালেঞ্জ তো সব সময় আমাদেরকেই নিতে হয়। এই চ্যালেঞ্জটা থাকছে, এখনও যে নাই তা না। আর আমরা এই টুর্নামেন্টটা যদি জিতিও পরের সিরিজে তো একই চাপ থাকবে। বাংলাদেশের হয়ে খেললে এই চ্যালেঞ্জ থাকবেই। নতুন কিছু নয়।’

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.