রোগী-চিকিৎসক সুরক্ষা আইনের খসড়া চূড়ান্তে ৫ সদস্যের কমিটি গঠন

বিশেষ সংবাদদাতা

রোগী ও চিকিৎসকদের সুরক্ষায় আইনের খসড়া চূড়ান্ত করতে স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেকের নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যের কমিটি করেছে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়। মঙ্গলবার সচিবালয়ে স্বাস্থ্যসেবা আইন প্রণয়ন সংক্রান্ত এক সভায় স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম এই কমিটি গঠন করেন। তিনি আইনের খসড়া মন্ত্রিসভা বৈঠকে দ্রুত উত্থাপনের জন্য প্রস্তুত করতে খসড়াটি আগামী সাতদিনের মধ্যে চূড়ান্ত করার নির্দেশ দেন। হাসপাতালে রোগী এবং চিকিৎসকদের সুরক্ষার লক্ষ্যে আইন প্রয়োজন বলে তিনি উল্লেখ করেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিমের সভাপতিত্বে স্বাস্থ্যসেবা আইন প্রণয়ন সংক্রান্ত এ সভায় স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেক, স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সচিব মো. সিরাজুল হক খান, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ, বিএমএ সভাপতি ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন, বিএমএ মহাসচিব ডা. ইহতেশামুল হকসহ মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রীর নেতৃত্বে গঠিত কমিটিতে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ও যুগ্মসচিবসহ বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন এবং স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের একজন করে প্রতিনিধি থাকবেন।
২০১৪ সালে ‘স্বাস্থ্য সেবা দানকারী ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান সুরক্ষা আইন’ ও ‘রোগী সুরক্ষা আইন’ শিরোনামের দুটি পৃথক আইনের খসড়া তৈরি করেছিল সরকার। অবহেলার জন্য চিকিৎসককে ফৌজদারি অপরাধে দন্ডের বিধানসহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে চিকিৎসকদের বিরোধিতায় তা আর পাস হয়নি।
অন্যদিকে চিকিৎসকদের পাশাপাশি রোগীর সুরক্ষার আইন একইসঙ্গে করে উভয়ের স্বার্থ সুরক্ষার দাবি রয়েছে স্বাস্থ্য অধিকারকর্মীদের। এই প্রেক্ষাপটে ২০১৬ সালে ‘রোগী এবং স্বাস্থ্য সেবাদানকারী ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান সুরক্ষা আইন, ২০১৬’ শিরোনামে আইনের খসড়া তৈরি করে সরকার, যা দ্রুত পাস হওয়ার কথা ছিল।

 

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.