ads

ঢাকা, শনিবার,২১ এপ্রিল ২০১৮

ক্রিকেট

জিম্বাবুয়েকে দিয়েই সেই বাংলাদেশের প্রত্যাবর্তন!

নয়া দিগন্ত অনলাইন

১৪ জানুয়ারি ২০১৮,রবিবার, ১৭:৫৬


প্রিন্ট
জিম্বাবুয়েকে দিয়েই সেই বাংলাদেশের প্রত্যাবর্তন!

জিম্বাবুয়েকে দিয়েই সেই বাংলাদেশের প্রত্যাবর্তন!

বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ের ম্যাচ দিয়ে সোমবার পর্দা উঠছে ত্রিদেশীয় ওয়ানডে সিরিজের। জয় দিয়ে আসর শুরু করার প্রত্যয় বাংলাদেশের। শুভ সূচনা করার লক্ষ্য জিম্বাবুয়েরও। টুর্নামেন্টে বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ের প্রথম ওয়ানডেটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় বেলা ১২টায়। টুর্নামেন্টের আরেক দল শ্রীলঙ্কা।

২০১৪ সালের নভেম্বর থেকেই ওয়ানডেতে দুর্দান্ত এক দল বাংলাদেশ। বিশ্বের বাঘা-বাঘা দলগুকে নাকানিচুবানি দিয়ে ক্রিকেট অঙ্গনে নিজেদের ‘শক্তিশালী’ দলের তকমাটা লাগিয়ে ফেলেছে মাশারাফি বিন মর্তুজার বাংলাদেশ। দ্বিপক্ষীয় সিরিজে পাকিস্তান, ভারত, দক্ষিণ আফ্রিকা, জিম্বাবুয়ে ও আফগানিস্তানকে হারায় তারা। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ ড্র’র রেকর্ডও আছে সফরকারী হিসেবে বাংলাদেশের। অবশ্য ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ডের কাছে সিরিজ হারের স্বাদ পেয়েছিল টাইগাররা।

তবে সিরিজ জয়-হার ও ড্র’র মাঝেও গেল বছর ওয়ানডেতে সবচেয়ে বড় সাফল্য পেয়েছিল বাংলাদেশ। আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির সেমিফাইনালে খেলার অর্জন করেছিলো মাশরাফির নেতৃত্বাধীন দলটি। তবে সর্বশেষ সিরিজে দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে গিয়ে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হয় বাংলাদেশ।
তবে এসব এখন অতীত। নতুন বছরে নতুনভাবে সাফল্যের লক্ষ্যে ত্রিদেশীয় সিরিজ শুরু করছে বাংলাদেশ। প্রথম ম্যাচ থেকেই জয়ের লক্ষ্য বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজার, ‘সবার মত আমাদেরও একই প্রত্যাশা। আমরা অবশ্যই জিততে চাই এবং ভালোভাবে জিততে চাই। আমরা ভালো ক্রিকেট খেলতেই মাঠে নামবো।’

ওয়ানডে র‌্যাংকিং-এ বাংলাদেশ রয়েছে সাত নম্বরে। আর বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ জিম্বাবুয়ের অবস্থান দশম। তাই র‌্যাংকিং, শক্তির বিচারে বাংলাদেশের চেয়ে বেশ পিছিয়ে জিম্বাবুয়ে। কিন্তু প্রকিপক্ষকে হাল্কাভাবে নিতে নারাজ টাইগার অধিনায়ক । তিনি বলেন, ‘প্রতিপক্ষ যেই হোক তা সহজ নয়। বিশেষ করে যদি জিম্বাবুয়ের দিকে তাকান তাহলে তারাও ভালো দল। সম্প্রতি তারা শ্রীলঙ্কাকে তাদের মাটিতেই হারিয়েছে। শ্রীলঙ্কাও ভালো দল। ভারতের মাটিতে তারা একটা ভালো ম্যাচ জিতেছে। টুর্নামেন্টে টিকে থাকতে হলে আমাদের ধারাবাহিকভাবে এগোতে হবে।’

কুয়াশার কারণে টস বড় ফ্যাক্টর হতে পারে। তাই কুয়াশা ও দল নিয়ে বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি বলেন, ‘কুয়াশার উপর নির্ভর করছে শুরুতে কী করা যাবে। ব্যাটিং নাকি বোলিং করা হবে। বেশি কুয়াশা থাকলে সিদ্বান্ত একরকম হবে। আর না পড়লে অন্য রকম। আসলে এসব নিয়ে না ভেবে শুরুতে যা সামনে আসবে তা ভালোভাবে করতে হবে।’

কুয়াশা উইকেটের আচরনে বড় প্রভাব ফেলতে পারে। তবে উইকেট নিয়ে এখনই কিছু বলতে পারছেন না মাশরাফি, ‘উইকেট এখন পর্যন্ত ভালোই আছে। তবে দেখতে হবে ম্যাচের দিন আবহাওয়া কেমন হয়। আবহাওয়ার উপর অনেক কিছু নির্ভর করছে।’

ওয়ানডেতে এখন পর্যন্ত ৬৭ ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে বাংলাদেশ ও জিম্বাবুয়ে। এরমধ্যে ৩৯টি জিতেছে টাইগাররা। জিম্বাবুয়ের জয় ২৮টি ম্যাচে। সর্বশেষ ২০১৫ সালে তিন ম্যাচের সিরিজে মুখোমুখি হয়েছিলো বাংলাদেশ ও জিম্বাবুয়ে। ঐ সিরিজটি ৩-০ ব্যবধানে জিতেছিলো বাংলাদেশ।

বাংলাদেশ দল : মাশরাফি বিন মর্তুজা (অধিনায়ক), সাকিব আল হাসান, ইমরুল কায়েস, এনামুল হক বিজয়, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, মুশফিকুর রহিম, সাব্বির রহমান, নাসির হোসেন, মোহাম্মদ মিথুন, মেহেদি হাসান মিরাজ, মুস্তাফিজুর রহমান, আবুল হাসান রাজু, রুবেল হোসেন, মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন ও সানজামুল ইসলাম।

জিম্বাবুয়ে দল : গ্রায়েম ক্রেমার (অধিনায়ক), হ্যামিলটন মাসাকাদজা, সলোমন মির, ক্রেইগ আরভিন, ব্রেন্ডন টেইলর, সিকান্দার রাজা, পিটার মুর, ম্যালকম ওয়ালার, রায়ান মারে, টেন্ডাই চিসোরো, ব্রেন্ডন মাভুতা, ব্লেসিং মুজারাবানি, ক্রিস্টোফার মোফু, টেন্ডাই চাতারা ও কাইল জার্ভিস।

 

ads

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫