ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে দু’দিন চিকিৎসাধীন থাকার পর আজ রোববার সকালে মিন্টু মারা যান।
ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে দু’দিন চিকিৎসাধীন থাকার পর আজ রোববার সকালে মিন্টু মারা যান।

সোনারগাঁওয়ে ইভটিজিংয়ে বাধা দেয়ায় যুবককে পিটিয়ে হত্যা

সোনারগাঁও (নারায়ণগঞ্জ) সংবাদদাতা

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ে মামাতো বোনকে ইভটিজিংয়ে বাধা দেয়ায় এক যুবককে পিটিয়ে হত্যা করেছে বখাটেরা। নিহত যুবকের নাম সুলতান আহমেদ মিন্টুকে (৩৫)।

ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে দু’দিন চিকিৎসাধীন থাকার পর আজ রোববার সকালে মিন্টু মারা যান।

এদিকে মিন্টুর মৃত্যুর সংবাদ পেয়ে রোববার সকালে ইভটিজারের বাড়ি ভাঙচুরসহ অগ্নিসংযোগ করে বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী।
গত শুক্রবার মিন্টুর মামাতো বোনকে ইভটিজিং করে স্থানীয় বখাটে জাকির হোসেন। তারই প্রতিবাদ করলে শুক্রবার জাকির ক্রিকেট ব্যাট দিয়ে মিন্টুকে পিটিয়ে আহত করে।

নিহত সুলতান আহমেদ মিন্টু উপজেলার মোগড়াপাড়া ইউনিয়নের ছোট সাদিপুর এলাকার সামসুল হকের ছেলে।

এলাকাবাসী ও পুলিশ সুত্রে জানা গেছে, মিন্টুর মামাতো বোনকে বেশ কয়েকদিন ধরে একই উপজেলার বন্দরা গ্রামের রফিকের বখাটে ছেলে জাকির ইভটিজিং করে আসছিল। গত শুক্রবার মিন্টু তার বোনকে উত্যক্ত না করার জন্য জাকিরকে বলেন। এসময় তাদের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে জাকির তার হাতে থাকা ক্রিকেট ব্যাট দিয়ে মিন্টুকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। পরে স্থানীয়রা তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় সেখানকার চিকিৎসকরা তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসাপাতালে পাঠায়। সেখানে দু’দিন চিকিৎসার পর আজ সকালে মিন্টু মারা যান।

এদিকে মিন্টুর মৃত্যুর সংবাদে তার স্বজনরা লাঠিসোটা নিয়ে বখাটে জাকির হোসেনের বাড়ি ভাঙচুর করে। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে।

এদিকে জাকিরের ইভটিজিংয়ের হাত থেকে রক্ষা পেতে মিন্টুর মামাতো বোনের পরিবারের পক্ষ থেকে জাকিরের বিরুদ্ধে সোনারগাঁও থানায় অভিযোগও দায়ের করা হয়েছিল। তবে পুলিশ কোনো ব্যবস্থা না নেয়ায় জাকির আরো বেপরোয়া হয়ে উঠে।

সোনারগাঁও থানার ওসি (অপারেশন) আব্দুল জব্বার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ঘটনার সংবাদে নিহত মিন্টু ও অভিযুক্তদের বাড়িতে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। যেকোনো অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। নিহতের ঘটনার তদন্ত করে অভিযুক্তকে দ্রুত গ্রেফতার করা হবে।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.