শিশুকে শ্বাসরোধে হত্যার পর গলা কেটে মৃত্যু নিশ্চিত করে চাচি

বেড়া (পাবনা) সংবাদদাতা

বেড়া আলহেরা একাডেমি স্কুল অ্যান্ড কলেজের প্রথম শ্রেনীর ছাত্র মাশরাফি মর্তুজা তামিম (৭) হত্যা রহস্য উদঘাটন হয়েছে। হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত একটি কাস্তে ও ফিতা জব্দ করেছে পুলিশ। পুলিশ ঘাতক আঞ্জুয়ারাকে (৪২) গ্রেফতার করে পাবনা জেল হাজতে পাঠিয়েছে।
বেড়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ মোজাফ্ফর হোসেন জানান, গত ১০ জানুয়ারি উপজেলার চাকলা ইউনিয়নের খাগছাড়া চকপাড়া গ্রামের মনসুর আমিনের ছেলে বেড়া আলহেরা একাডেমি স্কুল অ্যান্ড কলেজের প্রথম শ্রেনীর ছাত্র তামিম খুন হয়। পুলিশ তামিমের আপন চাচি আঞ্জুয়ারাকে আটক করে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করে। জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে আঞ্জুয়ারা তামিমকে হত্যার কথা স্বীকার করে বলে ১৬ ডিসেম্বর তামিমের পিতার সাথে তার ঝগড়া হয়। ঝগড়ার এক পর্যায়ে তামিমের পিতা তার মুখে থুথু ছিটিয়ে দেয়। এর প্রতিশোধ নেয়ার জন্য বাড়ীর পাশে খড়ের গাদার কাছে তামিমকে একাকী পেয়ে তার গলায় ফিতা পেঁচিয়ে শ্বাসরোধ করে তাকে হত্যা করা করে। পরে বাড়ী থেকে কাস্তে এনে গলা কেটে মৃত্যু নিশ্চিত করে। তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে পুলিশ হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত ফিতা ও কাস্তে উদ্ধার করে। এ ঘটনায় বেড়া থানায় আঞ্জুয়ারার বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা দায়ের হয়েছে।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.