জীবননগর থানার ওসির বিরুদ্ধে অর্থ বানিজ্যের অভিযোগ

চুয়াডাঙ্গা সংবাদদাতা

চুয়াডাঙ্গার জীবননগর থানার অফিসার ইনচার্জ এনামুল হকের বিরুদ্ধে নিরীহ ব্যাক্তির নামে মামলা দিয়ে হয়রানি ও অর্থ বানিজ্যের অভিযোগ উঠেছে। চুয়াডাঙ্গার জীবননগর উপজেলার রায়পুর গ্রামের আবদুল হামিদের ছেলে যুবলীগ কর্মী কবির হোসেন ও আবদুল কুদ্দুসের ছেলে যুবলীগ কর্মী আবু হুরায়রা এ অভিযোগ করেছেন। তারা বলেন ঘুষ না পেয়ে ওসি তাদেরকে নারী নির্যাতন মামলায় জড়িয়েছেন। 

অভিযোগে জানা যায়, জীবননগর উপজেলার রায়পুর গ্রামের সরকারপাড়ার হাফিজ উদ্দীনের মেয়ে শাবানার (৩০) সঙ্গে জমিসংক্রান্ত বিরোধ হয় একই পাড়ার যুবলীগ কর্মী কবির হোসেন ও আবু হুরায়রার সাথে। এ বিষয়ে শাবানা জীবননগর থানায় হাজির হয়ে তাকে মারধর ও শ্লীতাহানির লিখিত অভিযোগ করেন।
অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ কবির ও আবু হুরায়রাকে আটক করে। পরে পারিবারিকভাবে বিষয়টি সমাধানের পর শাবানা স্থানীয় কিছু লোকজন নিয়ে থানায় উপস্থিত হয়ে তার দায়ের করা অভিযোগ তুলে নিতে চায়। কিন্তু থানার অফিসার ইনচার্জ এনামুল হক শাবানাকে থানার একটি ঘরে আটকে রেখে নতুন করে মনগড়া অভিযোগ লিখে তাতে জোর করে তার স্বাক্ষর নেওয়ার চেষ্টা করে। কিন্তু শাবানা তাতে স্বাক্ষর করেনি। পরে ওসি এনামুল হক বাদী শাবানার আপসনামা আমলে না নিয়ে কবির ও আবু হুরায়রাকে মিথ্যা মামলা দিয়ে আদালতে পাঠান। গত বুধবার তারা জামিনে মুক্ত হন। অভিযোগ সম্পর্কে জীবননগর থানার ওসি এনামুল হক বলেন, বাদীর অভিযোগের ভিত্তিতে মামলা নেওয়া হয়। আসামীদের কাছে ঘুষ চাওয়ার বিষয়টি সম্পুন্ন মিথ্যা বলে দাবী করেন।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.