আত্মবিশ্বাসী ক্রেমারের পুঁজি পূর্ব অভিজ্ঞতা

ক্রীড়া প্রতিবেদক

ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলতে বাংলাদেশের উদ্দেশে রওনা হওয়ার আগে জিম্বাবুয়ে অধিনায়ক নিজ দেশের সাংবাদিকদের বলেছিলেন, বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কাকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে সিরিজ জয়ের আত্মবিশ্বাস তাদের আছে। গত শুক্রবার বাংলাদেশে পৌঁছানোর পর গতকাল মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামের সংবাদমাধ্যমে কথা বলেন একই সুরে, ‘দারুণ একটি সিরিজ হবে। প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ এই সিরিজে বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কাকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেয়ার সামর্থ্য রাখে তার দল। আর এই আত্মবিশ্বাসের পুঁজি জিম্বাবুয়ের পূর্ব-অভিজ্ঞতা। এ দেশে খেলার অভিজ্ঞতা।’
সদ্যই দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে চার দিনের টেস্টে বাজে অভিজ্ঞতা সঙ্গী হয়েছে জিম্বাবুয়ের। তবে গতবছর শ্রীলঙ্কার মাটিতে ওয়ানডে সিরিজ জয়ের স্মৃতি আছে তাদের। সব মিলিয়েই আত্মবিশ্বাসী অধিনায়ক ক্রেমার, ‘প্রত্যেকটি দলই ওয়ানডে ক্রিকেটে ভালো করার সামর্থ রাখে। তিন দলেরই ভালো স্পিনার রয়েছে। আমার মনে হয় মাঠে যে টিম সেরাটা দিতে পারবে ফল তাদের পক্ষে যাবে। প্রতিটি দল নিজেদের দিনে যে কাউকে হারানোর ক্ষমতা রাখে। আমার মনে হয় দারুণ একটি ত্রিদেশীয় সিরিজ হবে।’
বাংলাদেশের মাটিতে সাম্প্রতিক অতীতে কোনো সুখস্মৃতি নেই জিম্বাবুয়ের। আর এবার সিরিজ জেতা মানে স্বাগতিক দলকে পেছনে ফেলতে হবে। পেছনে ফেলতে হবে হাতুরা সিংহের শ্রীলঙ্কাকেও। ক্রেমার এখানেও বেশ আত্মবিশ্বাসী, ‘তারা (বাংলাদেশ) নিজেদের মাঠে অনেক বেশি শক্তিশালী। আমি মনে করি তারুণ্য এবং অভিজ্ঞতা মিলিয়ে আমাদের দল। আমাদের অনেকেই এখানে দীর্ঘ সময় ক্রিকেট খেলেছে। আমরা জানি বাংলাদেশের খেলোয়াড়রাই এগিয়ে। আমরা শ্রীলঙ্কা সিরিজ থেকে আত্মবিশ্বাস নিয়ে ফিরেছি। আমি মনে করি আমাদের দলটাও এখন দারুণভাবে সজ্জিত।’
জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট দল গত শুক্রবার ঢাকায় আসে পূর্বনির্ধারিত তারিখ দুই দফায় পিছিয়ে। ফলে বিসিবি একাদশের বিপক্ষে একটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলার কথা থাকলেও সেটি সম্ভব হয়নি। তবে জিম্বাবুয়ের ক্রিকেটাররা বাংলাদেশের কন্ডিশনের সাথে পরিচিত বলেই সেটি নিয়ে ভাবছেন না ক্রেমার। ‘বিপিএলে বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কার বেশ কিছু খেলোয়াড় সম্পর্কে জেনেছি। এটি অনেক সাহায্য করবে। আমার, সিকান্দার রাজার ও ম্যালকমের অভিজ্ঞতা ত্রিদেশীয় সিরিজে কাজে দেবে। এখানে রেকর্ড ভালো হলেও অনেক সময় বাংলাদেশে সফর করা বেশ কঠিন। ব্রেন্ডন টেলর ও কাইল জারভিসকে দলে পাওয়া স্বস্তির। আমাদের বোলিং অ্যাটাকের নেতৃত্বে থাকবে জারভিস। হ্যামিলটন মাসাকাদজার দিকে তাকিয়ে থাকব। আশা করছি উড়ন্ত সূচনা এনে দেবে। এখানে তার রেকর্ড বেশ ভালো।’

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.