ঢাকা, মঙ্গলবার,২৩ জানুয়ারি ২০১৮

অন্যদিগন্ত

গর্হিত মন্তব্যের জন্য ক্ষমা চাইতে হবে ট্রাম্পকে : আফ্রিকান ইউনিয়ন

বিবিসি

১৪ জানুয়ারি ২০১৮,রবিবার, ০০:০০


প্রিন্ট
ক্যারিবীয় দেশ হাইতিতে ভয়াবহ ভূমিকম্পের ৮ম বার্ষিকী স্মরণে শুক্রবার ফ্লোরিডার মিয়ামিতে সমবেত হয়েছে যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী হাইতির নাগরিকেরা। তবে এই শোকসমাবেশে অভিবাসীদের প্রতি ট্রাম্পের বিদ্বেষমূলক বক্তব্যের প্রতিবাদ জানিয়ে প্ল্যাকার্ড বহন করেন অনেকে : এএফপি

ক্যারিবীয় দেশ হাইতিতে ভয়াবহ ভূমিকম্পের ৮ম বার্ষিকী স্মরণে শুক্রবার ফ্লোরিডার মিয়ামিতে সমবেত হয়েছে যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী হাইতির নাগরিকেরা। তবে এই শোকসমাবেশে অভিবাসীদের প্রতি ট্রাম্পের বিদ্বেষমূলক বক্তব্যের প্রতিবাদ জানিয়ে প্ল্যাকার্ড বহন করেন অনেকে : এএফপি

আফ্রিকা মহাদেশের দেশগুলোকে ‘অত্যন্ত নোংরা জায়গা’ মন্তব্যের জন্য মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে ক্ষমা চাইতে বলেছে আফ্রিকান ইউনিয়ন। আফ্রিকার দেশগুলোর প্রতিনিধিত্বকারী সংস্থাটি ওয়াশিংটন ডিসি মিশন ট্রাম্পের এ মন্তব্যে ‘মর্মাহত, অপমানিত ও উদ্বিগ্ন’ হওয়ার কথা জানিয়েছেন।
বৃহস্পতিবার হোয়াইট হাউজের ওভাল দফতরে অভিবাসন নিয়ে এক বৈঠক চলাকালে ট্রাম্প কথিত ওই মন্তব্যটি করেন বলে প্রকাশিত বিভিন্ন খবরে বলা হয়েছে। কিন্তু কথিত ওই ভাষা ব্যবহার করেননি বলে দাবি করেছেন ট্রাম্প। ওই বৈঠকে উপস্থিত দুই রিপাবলিকান সিনেটর অবশ্য ট্রাম্পের দাবির প্রতি সমর্থন জানিয়েছেন। কিন্তু একই বৈঠকে উপস্থিত ডেমোক্র্যাটিক সিনেটর ডিক ডারবিন জানিয়েছেন, বৈঠকে বেশ কয়েকবার আফ্রিকার দেশগুলোকে ‘নোংরা জায়গা’ বলে মন্তব্য করে ‘বর্ণবাদী’ ভাষা ব্যবহার করেছেন ট্রাম্প।
শুক্রবার এক টুইটে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জানিয়েছেন, অভিবাসন আইন ‘কঠোর’ করা নিয়ে আইনপ্রণেতাদের সাথে ওই গোপনীয় বৈঠকটি করছিলেন তিনি। কিন্তু তিনি বলছেন বলে যেসব শব্দ উল্লেখ করা হচ্ছে ‘সেগুলো ব্যবহার করা হয়নি’।
অন্য দিকে আফ্রিকান ইউনিয়ন বলেছে, ‘এই মন্তব্যে যুক্তরাষ্ট্রের উজ্জ্বল ভাবমর্যাদা এবং বৈচিত্র্য ও সম্মানের প্রতি অশ্রদ্ধা জানানো হয়েছে। সংস্থাটি বলেছে, ‘এই মন্তব্যে আমরা আহত, অপমানিত ও উদ্বিগ্ন হয়েছি। আফ্রিকা মহাদেশ ও এর অধিবাসীদের বিষয়ে বর্তমান (মার্কিন) প্রশাসনের ব্যাপক ভুল বুঝাবুঝি রয়েছে বলে গভীরভাবে বিশ্বাস করে এইউ। এই বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্র প্রশাসন ও আফ্রিকার দেশগুলোর মধ্যে জরুরিভিত্তিতে সংলাপ হওয়া দরকার।’
ট্রাম্পের এই মন্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় বোতসওয়ানায় নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূতকে তলব করে কৈফিয়ত চেয়েছে দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। মার্কিন প্রেসিডেন্ট এমন মন্তব্য করেছেন নিশ্চিত হলে তা ‘অতিশয় বেদনাদায়ক ও লজ্জাজনক’ হবে বলে জানিয়েছেন জাতিসঙ্ঘের মানবাধিকার বিষয়ক মুখপাত্র রুপার্ট কোলভিল।

 

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫