ঢাকা, শুক্রবার,১৯ জানুয়ারি ২০১৮

ক্রিকেট

মাশরাফি-সাকিবদের পারিশ্রমিক কমে যা হলো

নয়া দিগন্ত অনলাইন

১২ জানুয়ারি ২০১৮,শুক্রবার, ১৬:২৯ | আপডেট: ১২ জানুয়ারি ২০১৮,শুক্রবার, ১৬:৩৯


প্রিন্ট
ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

ঢাকা প্রিমিয়ার লীগের গত আসরে দেশের শীর্ষ ক্রিকেটাররা পারিশ্রমিক পেয়েছিলেন ৫০ লাখ টাকার আশেপাশে। কিন্তু এবার ‘প্লেয়ার্স বাই চয়েজের’ ধাক্কায় সেটি নেমে গেছে অনেকটাই। ‘আইকন’ গ্রেডে দেশের ৫ সিনিয়র ক্রিকেটারের পারিশ্রমিক ধরা হয়েছে ৩৫ লাখ টাকা।

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের প্লেয়ার্স ড্রাফটের খেলোয়াড় তালিকা বৃহস্পতিবার রাতে প্রকাশ করেছে ক্রিকেট কমিটি অব ঢাকা মেট্রোপলিস। মোট ২২৭ জন ক্রিকেটার আছেন তালিকায়। আইকন গ্রেডের প্রথম ভাগে ৩৫ লাখ পারিশ্রমিক ক্যাটেগরিতে আছেন মাশরাফি বিন মুর্তজা, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম, তামিম ইকবাল ও মাহমুদউল্লাহ।

আগেই বলা হয়েছিল, এবার ‘আইকন’ গ্রেডে থাকবেন ১২ ক্রিকেটার। শীর্ষ ৫ ক্রিকেটারের বাকি ৭ জনকে রাখা হয়েছে আইকন গ্রেডেই ভিন্ন ক্যাটেগরিতে। একই গ্রেডে হলেও বিস্ময়কর ভাবে এই ক্যাটেগরিতে পারিশ্রমিক কমিয়ে ফেলা হয়েছে ১০ লাখ টাকা!

২৫ লাখ টাকার এই ক্যাটেগরিতে আছেন ইমরুল কায়েস, মুস্তাফিজুর রহমান, নাসির হোসেন, মেহেদী হাসান মিরাজ, লিটন কুমার দাস, এনামুল হক বিজয় ও রুবেল হোসেন।

ঘরোয়া ক্রিকেটের সব সংস্করণে বরাবরই শীর্ষ পারফরমারদের একজন হলেও আইকন গ্রেডে জায়গা হয়নি মুমিনুল হকের। তাকে রাখা হয়েছে ‘এ প্লাস’ গ্রেডে। এই গ্রেডে আছে তিনটি ক্যাটেগরি। ২৩ লাখ টাকা পারিশ্রমিকে একমাত্র নাম মুমিনুল হক।

২২ লাখ টাকা ক্যাটেগরিতে আছেন তিন ক্রিকেটার।

ওয়ানডে দলে জায়গা হারানো সৌম্য সরকারের জায়গা হয়েছে এই গ্রেডেই, তবে ২০ লাখ টাকার ক্যাটেগরিতে।

ওয়ানডে দলে জায়গা হারানো আরেক ক্রিকেটার তাসকিন আহমেদকে রাখা হয়েছে ‘এ’ গ্রেডে। এই গ্রেডে ক্যাটেগরি করা হয়েছে পাঁচটি! ১৮ লাখ টাকা থেকে শুরু। এরপর ১৭ লাখ, ১৬ লাখ, ১৫ লাখ ও ১২ লাখ টাকা।

এভাবেই পর্যায়ক্রমে আছে ‘বি প্লাস’, ‘বি’, ‘সি প্লাস’ ও ‘সি’ গ্রেড। সবশেষ ‘সি’ গ্রেডের পারিশ্রমিক সাড়ে তিন লাখ টাকা। দীর্ঘদিন জাতীয় দলের বাইরে থাকা দুই পেসার রবিউল ইসলাম ও সৈয়দ রাসেলকে রাখা হয়েছে এই গ্রুপে।

সিনিয়র দুই ক্রিকেটারকে সবশেষ গ্রেডে রাখা জন্ম দিচ্ছে প্রশ্নের। বিশেষ করে সৈয়দ রাসেল। দীর্ঘ চোট কাটিয়ে গত মৌসুমে ফিরে লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জের হয়ে ভালোই পারফর্ম করেছিলেন এই বাঁহাতি পেসার। সবশেষ ম্যাচেও নিয়েছিলেন ৪ উইকেট।

কে কোন গ্রেডে:

গ্রেড ‘আইকন’
৩৫ লাখ টাকা: মাশরাফি বিন মুর্তজা, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম, তামিম ইকবাল, মাহমুদউল্লাহ
২৫ লাখ টাকা: ইমরুল কায়েস, মুস্তাফিজুর রহমান, নাসির হোসেন, মেহেদী হাসান মিরাজ, লিটন কুমার দাস, এনামুল হক বিজয়, রুবেল হোসেন।

গ্রেড ‘এ প্লাস’
২৩ লাখ টাকা: মুমিনুল হক
২২ লাখ টাকা: মোহাম্মদ সাইফ উদ্দিন, মোহাম্মদ মিঠুন, মোসাদ্দেক হোসেন
২০ লাখ টাকা: সৌম্য সরকার, জহুরুল ইসলাম, শুভাগত হোম, শাহরিয়ার নাফিস, মোশাররফ হোসেন, জিয়াউর রহমান, অলক কাপালি, ফরহাদ রেজা, আরিফুল হক, সানজামুল ইসলাম, মার্শাল আইয়ুব, মোহাম্মদ আল আমিন, নাদিফ চৌধুরী, মেহেদি মারুফ, তাইজুল ইসলাম, আব্দুর রাজ্জাক, আবুল হাসান রাজু, শফিউল ইসলাম, নাজমুল হোসেন শান্ত, নাজমুল ইসলাম অপু।

গ্রেড ‘এ’
১৮ লাখ টাকা: সোহাগ গাজী, নুরুল হাসান সোহান, নাঈম ইসলাম, তাসকিন আহমেদ, তানবীর হায়দার, তুষার ইমরান, সাকলাইন সজিব, কামরুল ইসলাম রাব্বি, আবু হায়দার রনি।
১৭ লাখ টাকা: আরাফাত সানি, নাবিল সামাদ
১৬ লাখ টাকা: ইমতিয়াজ হোসেন
১৫ লাখ টাকা: মোহাম্মদ আশরাফুল, রনি তালুকদার, জুনায়েদ সিদ্দিক, ফরহাদ হোসেন, মুক্তার আলি, সোহওরাওয়ার্দী শুভ, আল আমিন হোসেন, মোহাম্মদ শরিফ, রকিবুল হাসান, মেহেদি হাসান, আবু জায়েদ রাহি, এনামুল হক জুনিয়র, শুভাশিস রায় চৌধুরি।
১২ লাখ টাকা: সাদমান ইসলাম, রাজিন সালেহ

গ্রেড ‘বি প্লাস’
১৪ লাখ টাকা: মেহরাব হোসেন জুনিয়র, মোহাম্মদ শরিফউল্লাহ
১৩ লাখ টাকা: তাইবুর পারভেজ, মাহমুদুল হাসান, আব্দুল মাজিদ, নাহিদুল ইসলাম
১২ লাখ টাকা: মোহাম্মদ শহিদ, ধীমান ঘোষ, ইরফান শুক্কুর, ইয়াসির আলি চৌধুরি রাব্বি, মনির হোসেন, দেলোয়ার হোসেন, তাসামুল হক, ফজলে রাব্বি মাহমুদ, জাকির হাসান, মাইশুকুর রহমান, নাজমুল হোসেন মিলন, আফিফ আহমেদ, সাইফ হাসান, মিজানুর রহমান, আলাউদ্দিন বাবু, ইলিয়াস সানি, আসিফ আহমেদ রাতুল, সৈকত আলি, শামসুর রহমান, নাফিস ইকবাল

গ্রেড ‘বি’
১০ লাখ টাকা: নিহাদ উজ জামান
৮ লাখ টাকা: আবু সায়েম চৌধুরি, শাহাদাত হোসেন, রাসেল আল মামুন, নাজমুল হোসেন, জয়রাজ শেখ, সাজেদুল ইসলাম, ডলার মাহমুদ, আসিফ হাসান, রাহাতুল ফেরদৌস, আব্দুল হালিম, জাবিদ হোসেন, সালমান হোসেন, জসিম উদ্দিন, শহিদুল ইসলাম, অমিত মজুমদার, মুরাদ খান, নাজমুস সাদাত, নাসুম আহমেদ, হামিদুল ইসলাম, মোহাম্মদ ফুরকান, শেনাজ আহমেদ, মাহবুবুল আলম, জুবাইর আহমেদ, রুম্মান আহমেদ, রেজাউল করিম, নাঈম ইসলাম জুনিয়র, অভিষেক মিত্র, আহমেদ সাদিকুর রহমান, সালেহ আহমেদ শাওন, রবিউল ইসলাম রবি, মাহবুবুল করিম মিঠু, জুবায়ের হোসেন লিখন, এজাজ আহমেদ, দেওয়ান সাব্বির, নাজিম উদ্দিন, তৌহিদুল ইসলাম রাসেল, সঞ্জিত সাহা, মেহেদি হাসান, মোহাম্মদ আজিম, নূর আলম সাদ্দাম, আব্দুর রহমান রনি, সাজ্জাদুল হক রিপন, রায়হান উদ্দিন, বিশ্বনাথ হালদার।

গ্রেড ‘সি প্লাস’
৫ লাখ টাকা: মেহেদি হাসান রানা, সায়েম আলম রিজভি, পিনাক ঘোষ, ইমরান আলি, মাহমুদুল হক সেতু, সৈয়দ খালেদ আহমেদ, হোসেন আলি, আশিকুজ্জামান আশিক, এবাদ হোসেন চৌধুরি, শাকের আহমেদ, আলি আহমেদ মানিক, জনি তালুকদার, গোলাম কবির সোহেল, শাহিন হোসেন, মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান, বেলাল হোসেন, কাফি খান, সুমন কুমার সাহা, মামুন হোসেন, ইমতিয়াজ আহমেদ চৌধুরি, হাসানুজ্জামান, উত্তম সরকার, শাহজাদা হোসেন, তাপস ঘোষ, আজমির আহমেদ, ইফতেখার সাজ্জাদ রনি, সাইদ সরকার, ইয়াসির আরাফাত মিশু, আরাফাত সানি জুনিয়র, মোহাম্মদ নুরুজ্জামান, সালাউদ্দিন পাপ্পু।

গ্রেড ‘সি’
সাড়ে তিন লাখ টাকা: রবিউল ইসলাম শিবলু, সগির হোসেন, সৈয়দ রাসেল, ইমন দাস, অমিতাভ কুমার নয়ন, মনোয়ার হোসেন, মেহরাব হোসেন জোসি, আরমান বাদশা, আশরাফুল হক শান্ত, ইয়াসিন আরাফাত, মনসুরুল হাসান রাহাদ, হুমায়ুন কবির শাহিন, সোহাগ রেজা, রায়হান উদ্দিন আরাফাত, হাবিবুর রহমান জনি, আব্দুল্লাহ আল মামুন, ইমামুল মুস্তাকিন রাসেল, নূর হোসেন মুন্না, জাকারিয়া মাসুদ, আবু বকর সিদ্দিক, টিপু সুলতান, ইসলামুল আহসান আবির, এনামুল হক, কেএম আনিসুর রহমান, মশিউর রহমান লিমন, গিয়াসউদ্দিন টুটুল, আহসানুল হক, রিফাতুজ্জামান অভি, রুবায়েত হক সুনান, সৈয়দ গোলাম কিবরিয়া, শফিউল আলম, সুব্রত সরকার, ভিক্টর বড়ুয়া, ইমরান হোসেন নয়ন, রাহি হাসান প্রান্ত, শরিফুল ইসলাম, শেখ নাজমুল হোসেন, সুলতান হোসেন, রিফাত প্রধান, মুজিবুর রহমান, ইমন আহমেদ, মাসুদ রানা, নেয়ামুল হোসেন তাজ, রিয়াজুল করিম, আলবাব মাসুদ,রিয়াজ হোসেন, দিদার হোসেন ইমরান, রাহি নাহিদ, তৌহিদ তারিক খান, তৌফিক খান তুষার, মোহাম্মদ ইসহাক, মোহাম্মদ সুমন, ফারদিন হাসান অনি, সায়মন আহমেদ, আসলাম হোসেন, মাহবুবুল আলম অনিক, আনজুম আহমেদ জোসি, তারিকুল ইসলাম, মইনুল হোসেন রিয়াদ, শাহবাজ চোহান, মাহমুদুল হাসান প্রান্ত, রিয়াজুল হুদা।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫