নাজিরপুরে স্কুলছাত্রীর রহস্যজনক মৃত্যু

পিরোজপুর সংবাদদাতা

পিরোজপুরের নাজিরপুরে এক স্কুলছাত্রীর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। স্বর্ণা আক্তার নামের ওই ছাত্রী উপজেলার মালিখালী ইউনিয়নের উত্তর ঝনঝনিয়া গ্রামে নানা সাহেব আলীর বাড়িতে থেকে পার্শ্ববর্তী গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া উপজেলার বাঁশবাড়িয়া বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে লেখাপড়া করতো। সে ওই বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর ছাত্রী ছলি।

নিহত ছাত্রী গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলার হিজলবাড়ি গ্রামের লেবানন প্রবাসী শাহ আলমের কন্যা।

মৃত্যুর পর তার নানা বাড়ির লোকজন আত্মগোপনে থাকায় বিষয়টি নিয়ে এলাকাবাসীর মনে ব্যাপক সন্দেহের সৃষ্টি হয়। স্থানীয়রা জানান, ওই ছাত্রী নানা বাড়িতে থাকাকালে গত মঙ্গলবার রাতে হঠাৎ তাকে নানা বাড়ির লোকজন চিকিৎসার জন্য টুঙ্গিপাড়া হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে রাতে তার মৃত্যু হলে দাফনের জন্য তার পিতার বাড়ি কোটালীপাড়ায় নিয়ে যাওয়া হয়।

নাজিরপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো: হাবিবুর রহমান জানান, তার মৃত্যু রহস্যজনক হিসাবে অভিযোগ থাকায় বুধবার রাতে লাশ কোটালীপাড়া থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। তা ময়না তদন্তের জন্য বৃহস্পতিবার পিরোজপুর মর্গে পাঠান হয়েছে।

নিহতের মা সেলিনা বেগম জানান, তার মেয়ে স্বর্ণা মানসিক রোগী হওয়ায় সে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে।

ওই লাশ উদ্ধার করা কর্মকর্তা ও উপজেলার মাটিভাঙ্গা তদন্ত কেন্দ্রের ওসি মো: মিজানুর রহমান জানান, ওই স্কুলছাত্রীর নানা সাহেব আলীর কাছে মৃত্যুর কারণ জানতে চাইলে তার নাতী স্ট্রোক করে মারা গেছে বলে জানান।

এ ব্যাপারে উপজেলার মালিখালী ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের সাবেক ইউপি সদস্য আব্দুল করিম জানান, ওই ছাত্রী বিষপানে আত্মহত্যা করেছে এমন সংবাদ পেয়ে গত বুধবার সকালে তার নানা বাড়িতে গিয়ে নানা সাহেব আলী ছাড়া কাউকেই পাওয়া যায়নি।

এ দিকে স্থানীয় একাধিক ব্যক্তির সাথে কথা বলে জানা গেছে, নিহত স্বর্ণা আক্তারের সাথে বাগেরহাট জেলার চিতলমারী উপজেলার সাইফুল ইসলাম নামে এক ছেলের সাথে বিয়ে হয়েছে। কিন্তু বিয়ের বিষয়টি তার মা অস্বীকার করেন।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.