ঢাকা, বৃহস্পতিবার,২৬ এপ্রিল ২০১৮

বরিশাল

অবৈধ প্রণয়ে শাশুড়ি হত্যার পরিণাম

কাঠালিয়া (ঝালকাঠি) সংবাদদাতা

১১ জানুয়ারি ২০১৮,বৃহস্পতিবার, ১৬:১৪


প্রিন্ট
অবৈধ প্রণয়ে শাশুড়ি হত্যার পরিণাম

অবৈধ প্রণয়ে শাশুড়ি হত্যার পরিণাম

ঝালকাঠির কাঠালিয়ায় অবৈধ প্রণয়ের জের ধরে শাশুড়িকে হত্যার দায়ে পুত্রবধূ ও তার প্রেমিককে যাবজ্জীবন কারদণ্ড দিয়েছে আদালত। একই সাথে আসামিদের ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ৬ মাসের জেল প্রদান করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে ঝালকাঠির অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মোহাঃ বজলুর রহমান এ রায় প্রদান করেন।

দন্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন কাঠালিয়ার জয়খালি গ্রামের কেফায়েত উল্লাহ (২৫) ও একই গ্রামের কুলসুম বেগম (২৮)। রায় প্রদান কালে আসামিরা আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

মামলার নথি আদালত সূত্রে জানাযায়, কাঠালিয়া উপজেলার জয়খালি গ্রামের কালাম হাওলাদার চাকরির সুবাদে ঢাকায় থাকার কারণে বাড়িতে তার স্ত্রী কুলসুম বেগম ও তার বৃদ্ধা মা রিজিয়া বেগম বসবাস করতেন। স্বামীর অনুপস্থিতে কুলসুম বেগম প্রতিবেশী কেফায়েত উল্লাহর সাথে বিবাহ-বহির্ভূত সম্পর্ক গড়ে তোলেন।

বিষয়টি শাশুড়ি রিজিয়া বেগমের কাছে ধরা পড়ায় কুলসুম বেগম তাকে প্রেমিকার সহায়তায় হত্যার পরিকল্পনা করেন। ২০১৫ সালের ১২ এপ্রিল কুলছুম বেগমের সহায়তায় প্রেমিকা কেফায়েত উল্লাহ ঘরে প্রবেশ করে রাজিয়া বেগমকে গলাটিপে হত্যা করে পাশের ডোবায় ফেলে রাখেন। পর দিন কুলছম বেগম পরিাবরের চাপে দোষ স্বীকার করায় রিজিয়া বেগমের মেয়ে কাঠালিয়া থানায় দুজনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

এরপর ১৬৪ ধারায় কুলসুম আদালতে স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি দেন। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কাঠালিয়া থানার উপপরিদর্শক আ. সালাম ২০১৫ সালের ৩১ মে অভিযোগ পত্র দেন। আদালত ৫ অক্টোবর ২০১৫ তারিখ অভিযোগ গঠন করেন।

এ বিষয়ে অতিরিক্ত সরকারি কৌশলী এম আলম কামাল বলেন, আদালত মামলায় ১৪ সাক্ষীর স্বাক্ষ্য গ্রহণের মাধ্যমে এ রায় প্রদান করেন।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫