ঢাকা, মঙ্গলবার,২৩ জানুয়ারি ২০১৮

ময়মনসিংহ

ইসলামপুরের যমুনা-ব্রহ্মপুত্রের চরাঞ্চলে ভুট্টা চাষ তিন গুণ বৃদ্ধি

খাদেমুল হক বাবুল, ইসলামপুর (জামালপুর)

১১ জানুয়ারি ২০১৮,বৃহস্পতিবার, ১১:৪৭


প্রিন্ট

জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলার যমুনা ও ব্রহ্মপুত্র নদ-নদীর চরাঞ্চলে ভুট্টা চাষে তিন কোটি টাকা আয়ের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। দু’দফা বন্যার পর ভুট্টার সম্ভাবনাময় বাম্পার ফলন বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের মাঝে আশার আলো জাগিয়ে তুলেছে। উপজেলায় এ বছর ভুট্টা চাষ গত বছরের চেয়ে তিন গুণ বেশি হয়েছে বলে জানা গেছে।

উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, উপজেলার যমুনা ও ব্রহ্মপুত্র নদ-নদীর চরাঞ্চল কৃষকরা বন্যার ব্যাপক ক্ষতি পুষিয়ে নিতেই স্বল্প সময়ে স্বল্প খরচে সহজ উপায়ে লাভজনক ফসল ভুট্টা চাষে ঝুকে পড়েছে। এ বছর উপজেলায় এক হাজার ৪৫০ হেক্টর জমিতে ভুট্টার চাষ হয়েছে। যা গত বছরের চেয়ে তিন গুণ বেশি বলে জানা গেছে। বন্যায় বালু জমিতে পলিমাটির আবরণ পড়ায় ভুট্টার বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা দু’দফা বন্যার পর ভুট্টা চাষ ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের মাঝে আশার আলো হিসাবে দেখা দিয়েছে।

কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগ জানায়, ইসলামপুরে ভুট্টা উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা দিন দিন বেড়ে চলেছে। এক হাজার ৪৫০ হেক্টর জমিতে ২০ হাজার মেট্রিক টন ভুট্টা উৎপাদনের লক্ষমাত্রা ধরা হয়েছে। সূত্র জানায়, যেসব জমিতে অন্য ফসল হয় না সে সব জমিতে মাত্র ১২০ দিন সময়ে অল্প ব্যয়ে এক বিঘা জমিতে ৩০ হাজার টাকার ভুট্টা উৎপাদন করা সম্ভব হয়।

ভুট্টা চাষী আতাউর রহমান জানান, উপজেলা কৃষি অফিসের সার্বিক সহযোগিতায় ভুট্টা চাষ চরাঞ্চলের কৃষকদের মাঝে অত্যন্ত লাভজনক ফসলে পরিণত হয়েছে। তিনি বলেন, ভুট্টা চাষে মাত্র একবার সেচ দিতে হয়। ক্ষেতে কোন আগাছা না জন্মানোর কারণে শ্রমিকও কম লাগে। তাই ভুট্টা চাষে খরচ অত্যন্ত কম হয়।

ভুট্টা চাষী আব্দুল মতিন বলেন, নদীর তীরবর্তী চরাঞ্চলের অনাবাদী বালু জমিতে ভুট্টা চাষ করে অসংখ্য কৃষক জীবন-জীবিকার পথ খোঁজে পেয়েছে। অনেকে ভুট্টা চাষ করে বছরে লাখ লাখ টাকা আয় করে থাকেন।

ভুট্টা চাষী কবির উদ্দিন জানান, দু’দফা বন্যার পর দিগন্ত জোড়া ভুট্টা চাষ চরাঞ্চলের বন্যাকবলিত মানুষদের মাঝে আশার আলো জাগিয়ে তুলেছে। তিনি বলেন, ক্ষেত দেখে মনে হয় এ বছর যমুনার চরাঞ্চলে ভুট্টা চাষের বিপ্লব ঘটার সম্ভাবনা রয়েছে।

স্থানীয় কৃষিবিদরা জানান, নদী ভাঙনে যেসব কৃষক ফসলি জমি হারিয়ে নিঃস্ব হয়েছিলো। ভুট্টা চাষ করে ওইসব কৃষক আবারো স্বাবলম্বী হয়েছে উঠেছে। আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে এ বছর ভুট্টা উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা অতীতের সকল রেকর্ড অতিক্রম করার সম্ভবনা রয়েছে।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ মতিয়ার রহমান জানান, এ বছর ২০ হাজার মেট্রিক টন উৎপাদনের লক্ষমাত্রা নিয়ে এক হাজার ৪৫০ হেক্টর জমিতে ভুট্টা চাষ করা হয়েছে। এতে চরাঞ্চলের কৃষকদের তিন কোটি টাকারও বেশি আয় হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তিনি বলেন, ভুট্টার সম্ভাবনাময় বাম্পার ফলন কৃষকদের বন্যার ক্ষয়ক্ষতি পুষিয়ে নিতে সাহায্য করবে।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫