ঢাকা, বুধবার,১৭ জানুয়ারি ২০১৮

আরো খবর

মাসদার হোসেন মামলা থেকে কামাল-আমীরকে বাদ দেয়ার সিদ্ধান্ত

নয়া দিগন্ত ডেস্ক

০৪ জানুয়ারি ২০১৮,বৃহস্পতিবার, ০০:২৭


প্রিন্ট
কামাল হোসেন ও এম আমীর-উল ইসলামের বিরুদ্ধে মাসদার হোসেন মামলাটি রাজনীতিকরণের অপচেষ্টার অভিযোগ তুলে মামলাটি পরিচালনা থেকে তাদের বাদ দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ জুডিশিয়াল সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশন।
অধস্তন আদালতের বিচারকদের শৃঙ্খলা বিধির গেজেট সুপ্রিম কোর্ট গ্রহণ করার পর গতকাল বুধবার অ্যাসোসিয়েশনের এক সভায় এই সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।
কামাল ও আমীরসহ ছয়জন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী এই গেজেটে আপত্তি জানিয়ে এক বিবৃতিতে বলেছিলেন, এটি মাসদার হোসেন মামলার উচ্চ আদালতের নির্দেশনার পরিপন্থী এবং এতে বিচার বিভাগের ওপর শাসন বিভাগের কর্তৃত্ব ফুটে উঠেছে। ওই বিবৃতি দৃষ্টিগোচর হওয়ার পর অ্যাসোসিয়েশনের কার্যনির্বাহী কমিটি এবং ঢাকায় কর্মরত বিচারকেরা বৈঠক করেন।
‘অধস্তন আদালতের বিচারকদের মধ্যে এই বিধিমালার বিষয়ে কোনোরূপ অসন্তোষ নেই’, বলা হয় জুডিশিয়াল সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশনের বিজ্ঞপ্তিতে।
এতে আরো বলা হয়, ‘অদ্য শুনানিকালে ব্যারিস্টার আমিরুল (আমীর-উল) ইসলাম অধস্তন আদালতের বিচারকদের স্বার্থবিরোধী বক্তব্য সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগে উপস্থাপন করায় এবং তার ওই বক্তব্য আদালত কর্তৃক গ্রহণযোগ্য না হওয়ায় জুডিশিয়াল সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশন তার এরূপ নেতিবাচক বক্তব্যে অসন্তোষ প্রকাশ করছে।
‘তা ছাড়া সুপ্রিম কোর্টের বিজ্ঞ আইনজীবী ব্যারিস্টার আমীর-উল ইসলাম ও ড. কামাল হোসেনকে মাসদার হোসেন মামলা পরিচালনার যে মতা (ওকালতনামা) এই অ্যাসোসিয়েশনের সদস্যরা প্রদান করেছিল, তা প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে।’
বাংলাদেশের বিচার বিভাগ পৃথকীকরণের রায়টি এই মাসদার হোসেন মামলায় এসেছিল বলে এটি ঐতিহাসিকভাবে গুরুত্বপূর্ণ।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫