এক্সেল লোড নিয়ন্ত্রণ ও লাইটারেজ সঙ্কট নিরসনে আন্তঃমন্ত্রণালয় সমন্বয় দাবি পোর্ট ইউজার্স ফোরামের

চট্টগ্রাম ব্যুরো

এক্সেল লোড নিয়ন্ত্রণ ও লাইটারেজ সঙ্কটসহ চট্টগ্রাম বন্দর দিয়ে আমদানি-রফতানিসংক্রান্ত বিভিন্ন সমস্যা সমাধানে বন্দর ব্যবহারকারীদের সংগঠন পোর্ট ইউজার্স ফোরামের সভা গতকাল বিকেলে ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারের বঙ্গবন্ধু কনফারেন্স হলে অনুষ্ঠিত হয়।
সভায় সঙ্কট নিরসনে অর্থ, বাণিজ্য, নৌ, সড়ক পরিবহন ও সেতু এবং শিল্প মন্ত্রণালয়ের সমন্বয়ে যৌথ সভা আয়োজন এবং প্রয়োজনে প্রধানমন্ত্রীর হস্তপেক্ষ কামনা করা হয়। ফোরাম চেয়ারম্যান ও চট্টগ্রাম চেম্বার সভাপতি মাহবুবুল আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় ফোরামের সদস্য সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ও প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।
পোর্ট ইউজার্স ফোরাম চেয়ারম্যান মাহবুবুল আলম বলেন, মোটরযানের এক্সেল লোড নিয়ন্ত্রণের ফলে সরকারের ভিশন বাস্তবায়নে যেসব মেগা প্রকল্প রয়েছে তার ব্যয় ৪০ হাজার কোটি টাকা অতিরিক্ত বৃদ্ধি পাবে। জনগণের ব্যবহৃত নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের মূল্য ১০-১২% বৃদ্ধি পাবে এবং নৌপথের উপর চাপ সৃষ্টি হবে।
সভায় মেট্রোপলিটন চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও বিজিএমইএর পরিচালক এ এম মাহবুব চৌধুরী সিঅ্যান্ডএফ এজেন্টস অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি এ কে এম আক্তার হোসেন, খাতুনগঞ্জ ট্রেড অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজ অ্যাসোসিয়েশন সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ ছগীর আহমদ, বিকেএমইএর সাবেক পরিচালক শওকত ওসমান, বন্দর লাইটারেজ ঠিকাদার সমিতির সভাপতি হাজী শফিক আহমেদ, আন্তঃজিলা মালামাল পরিবহন সংস্থা ট্রাক ও কাভার্ডভ্যান মালিক সমিতির সেক্রেটারি জাফর আহমেদ, চেম্বারের সদ্যবিদায়ী পরিচালক মাহফুজুল হক শাহ, চট্টগ্রাম বন্দর ট্রাক মালিক ও কন্ট্রাক্টর অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক জহুর আহমেদ, সিঅ্যান্ডএফের বন্দরবিষয়ক সম্পাদক মো: লিয়াকত আলী হাওলাদার, প্রাইম মুভার অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক আবুল হাশেম ও যুগ্ম সচিব আবু বকর সিদ্দিক, ডায়মন্ড সিমেন্টের পরিচালক মো: হাকিম আলী, কনফিডেন্স সিমেন্টের ডিএমডি জহির উদ্দিন, বিএসএএর খায়রুল আলম সুজন বক্তব্য রাখেন।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.