ঝিকরগাছায় দলীয় কোন্দলে আওয়ামী লীগ কর্মী খুন

যশোর অফিস

যশোরের ঝিকরগাছায় আব্বাস আলী (৪০) নামে এক আওয়ামী লীগ কর্মী খুন হয়েছেন। দলীয় কোন্দলের জের ধরে আব্বাসকে বোমা ও ছুরি মেরে হত্যা করা হয়েছে।

নিহত আব্বাস আলী চন্দ্রপুর গ্রামের মৃত হাজের আলীর ছেলে। তার এক ভাই উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক কামাল হোসেন। অপর ভাই আব্দুস সালাম ইউপি সদস্য।

নিহত পরিবার সাবেক প্রতিমন্ত্রী অধ্যাপক রফিকুল ইসলামের অনুসারী। আর হত্যাকারীরা যশোর-২ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মনিরুল ইসলাম অনুসারী বলে স্থানীয়রা বলছেন।

বুধবার বেলা ১১টার দিকে উপজেলার দোস্তপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়-সংলগ্ন রাস্তার ধারে সন্ত্রাসীরা আব্বাসকে বোমা ও ছুরি মেরে আহত করে। স্বজনরা আব্বাস আলীকে উদ্ধার করে যশোর সদর হাসপাতালে নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

স্থানীয়রা জানান, ঘটনার সময় দোস্তপুর নিজেদের নতুন বাড়ি নির্মাণের কাজ দেখাশুনা করছিলেন আব্বাস আলীসহ তার দুই ভাই সালাম মেম্বর ও কামাল হোসেন। হঠাৎ মির্জাপুর গ্রামের পালসার বাবুসহ ২০-২২ যুবক মোটরসাইকেলে চড়ে ঘটনাস্থলে এসে তাদের উদ্দেশে ৮-১০টি বোমা নিক্ষেপ করে। এসময় আব্দুস সালাম ও কামাল পালাতে পারলেও মাটিতে পড়ে যান আব্বাস। সন্ত্রাসীরা আব্বাসের পেটে ছুরি মেরে পালিয়ে যায়। পরে হাসপাতালে নেয়ার পথে মারা যান আব্বাস।

এদিকে আব্বাস আলীর লাশ বাড়িতে আনার পরপরই ঝিকরগাছা থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠাতে চাইলে চড়াও হন নিহতের স্বজনরাসহ এলাকাবাসী। পরে সহকারী পুলিশ সুপার মেহেদি ইমরান সিদ্দিকী ঘটনাস্থলে যান। তাতেও শান্ত হননি এলাকাবাসী।

সহকারী পুলিশ সুপার মেহেদি ইমরান সিদ্দিকী বলেন, বোমার আঘাতে আহত হয়ে মারা গেছেন আব্বাস। লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হচ্ছে। এ ঘটনায় এখনো কাউকে আটক করা যায়নি বলে জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.