ঢাকা, শুক্রবার,১৯ জানুয়ারি ২০১৮

বাংলার দিগন্ত

কুড়িগ্রামে জেকে বসেছে শীত ছিন্নমূল মানুষের দুর্ভোগ

রেজাউল করিম রেজা কুড়িগ্রাম

০৪ জানুয়ারি ২০১৮,বৃহস্পতিবার, ০০:০০


প্রিন্ট
খড়কুটো জ্বালিয়ে শীত নিবারণের চেষ্টা করছে কুড়িগ্রামের দরিদ্র মানুষ  :নয়া দিগন্ত

খড়কুটো জ্বালিয়ে শীত নিবারণের চেষ্টা করছে কুড়িগ্রামের দরিদ্র মানুষ :নয়া দিগন্ত

উত্তারাঞ্চলের সীমান্ত ঘেঁষা জেলা কুড়িগ্রামে শীতের তীব্রতা বেড়েছে। সন্ধ্যা থেকে দুপুর পর্যন্ত ঘন কুয়াশায় ঢাকা থাকছে গোটা জনপদ। গরম কাপড়ের অভাবে কষ্ট পাচ্ছে শিশু, বৃদ্ধসহ নি¤œ আয়ের কর্মজীবী মানুষ। কনকনে ঠাণ্ডার সাথে হিমেল হাওয়া ঠাণ্ডার মাত্রা আরো বাড়িয়ে দিয়েছে।
কুড়িগ্রাম আবহাওয়া অফিসের পর্যবেক্ষক জাকির হোসেন জানান, বুধবার কুড়িগ্রাম জেলার সর্বনি¤œ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ১২.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস।
শীত কাতর মানুষ খরকুটো জ্বালিয়ে শীত নিবারনের চেষ্টা করছেন। বিশেষ করে ব্রহ্মপুত্র, ধরলা, তিস্তাসহ ১৬টি নদ-নদীর অববাহিকায় চার শতাধিক চরের মানুষ শীতের তীব্রতায় দুর্ভোগে পড়েছেন। চরদ্বীপচরসহ নদী তীরবর্তী এলাকায় শীত বেশি অনুভূত হওয়ায় কষ্টে দিনাতিপাত করছেন এখানকার মানুষ। গত বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার ও নি¤œ আয়ের খেটে খাওয়া পরিবারগুলো গরম কাপড়ের অভাবে পড়েছে বিপাকে। কাজে বেড়াতে পাড়ছেন না শ্রমজীবী মানুষ। দুর্ভোগ বাড়তে শুরু করেছে হতদরিদ্র পরিবারগুলোর। স্বল্প আয়ের মানুষ ভিড় করছেন পুরনো কাপড়ের দোকানে। শীতের তীব্রতা বাড়তে থাকায় শিশুদের নানা রোগব্যাধি দেখা দিয়েছে।
কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার চর ভেলাকোপার সবুর উদ্দিন বলেন, আমরা গরিব মানুষ কাজ করি খাই। কিন্তু খুব ঠাণ্ডা পড়ছে সাথে বাতাস কাজে যেতে পারছি না। গরম কাপড় নেই। চিলমারী উপজেলার অষ্টমীর চরের ময়না বেগম জানান, কাপড় কেনার কোনো টাকা-পয়সা নেই। নিজের কাপড় না থাকলেও ছেলেমেয়েদের কাপড় তো কিনে দেয়া দরকার। কিন্তু হাতে কোনো টাকা নেই। কাজকার্মও চলে না। সদর উপজেলার পাঁচগাছী ইউনিয়নের বৃদ্ধ মজিদ বলেন, দিন দিন শীতের মাত্রা বাড়ছে। আমরা বৃদ্ধ মানুষ এখনই বাইরে বের হতে পারছি না। আরোতো দিন আছে। কি হবে জানি না।
এ ব্যাপারে কুড়িগ্রামের জেলা প্রশাসক আবু ছালেহ মোহাম্মদ ফেরদৌস খান জানান, তালিকা করে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত ও অসহায় মানুষদের শীত বস্ত্র বিতরণ করা হচ্ছে। আর শীত মোকাবেলায় জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সব রকমের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে

 

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫