বক্তব্য রাখছেন রংপুর রেঞ্জের ডিআইজি খন্দকার গোলাম ফারুক
বক্তব্য রাখছেন রংপুর রেঞ্জের ডিআইজি খন্দকার গোলাম ফারুক

সৈয়দপুরে সন্ত্রাস-মাদকবিরোধী সমাবেশে ২৬ মাদকসেবী ও বিক্রেতার আত্মসর্মপণ

সৈয়দপুর (নীলফামারী) সংবাদদাতা

নীলফামারীর সৈয়দপুরে আজ বুধবার দুপুরে সন্ত্রাস ও মাদকবিরোধী র‌্যালি ও সমাবেশে ২৬ জন মাদকসেবী ও বিক্রেতা আত্মসর্মপন করেছে। এসময় শহরে ৪০টি ক্লোজ সার্কিট (সিসি) ক্যামেরা স্থাপন কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে রংপুর রেঞ্জের ডিআইজি খন্দকার গোলাম ফারুক বিপিএম, পিপিএম উপস্থিত ছিলেন।

ডিআইজি খন্দকার গোলাম ফারুক বলেন, ‘ইসলাম জঙ্গিবাদকে সর্মথন করে না। যারা জঙ্গিবাদ করছে তারা বুঝে নয়তো না বুঝে করছে। ইসলামকে কলুষিত করার জন্যই জঙ্গিবাদ সৃষ্টি করা হয়েছে।’

সৈয়দপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও পৌর কমিউনিটি পুলিশিংয়ের সভাপতি মোখছেদুল মোমিনের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নীলফামারী জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ খালেদ রহীম, পুলিশ সুপার জাকির হোসেন খান, রেলওয়ে জেলা পুলিশ সুপার সিদ্দিকী তাঞ্জিলুর রহমান, নীলফামারী পৌরসভার মেয়র ও জেলা কমিউনিটি পুলিশিংয়ের সভাপতি দেওয়ান কামাল আহমেদ, সৈয়দপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো: বজলুর রশীদ, সৈয়দপুর পৌরসভার সাবেক মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আখতার হোসেন বাদল, নীলফামারী চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সাবেক সভাপতি ও জেলা কমিউনিটি পুলিশিংয়ের সাধারণ সম্পাদক সফিকুল ইসলাম ডাবলু প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে ২৬ জন চিহ্নিত মাদকসেবী ও বিক্রেতা আত্মসমর্পণ করে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসার অঙ্গীকার করেন। এর মধ্যে তিন জন নারী মাদক বিক্রেতা রয়েছেন।

এক নারী মাদক বিক্রেতা বলেন, ‘আমি স্বাভাবিক জীবনে ফিরে এসেছি। আমাকে ফিরে আসতে পুলিশ ও স্থানীয় লোকজন সহযোগিতা করেছেন।’

কমিউনিটি পুলিশিং সৈয়দপুরের আয়োজনে ও সৈয়দপুর থানার সহযোগিতায় র‌্যালিটি শহরের জিআরপি পুলিশ ক্লাব থেকে বের হয়ে প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে। র‌্যালিতে সাইকেল নিয়ে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী, রাজনৈতিক দলের নেতরা, জনপ্রতিনিধি, সাংবাদিক, পুলিশসহ সর্বস্তরের মানুষ অংশ নেন।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.