নবজাতকের মৃত্যু

‘আল্লাহর মাল আল্লাহ নেবে তাতে আমার কি’

দামুড়হুদা (চুয়াডাঙ্গা ) সংবাদদাতা

দর্শনা মডার্ন ক্লিনিকে ফের নবজাতকের মৃত্যুর পর ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ ঘটনাটি ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনা সম্পর্কে সংশ্লিষ্ট চিকিৎসকের ভাষ্য, ‘আল্লাহর মাল আল্লাহ নেবে তাতে আমার কি করার আছে’ ।
জানা গেছে দর্শনা বাজার পাড়ার আলাউদ্দিনের স্ত্রী আয়না খাতুনের প্রসব বেদনা দেখা গেলে ঐদিন রাত ৮টার দিকে স্থানীয় মডার্ন ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়। ক্লিনিকের মহিলা ডাক্তার না থাকলেও পুরুষ ডাক্তার মো: তারিকুল আলম এর নির্দেশে নার্স ও আয়ারা পরীক্ষা নিরীক্ষার কাজ সম্পন্ন করে। সে পর্যন্ত মা ও গর্ভের সন্তান ভাল ছিল বলে পারিবারিক ভাবে সাংবাদিকদের জানানো হয়েছে। রাত সাড়ে নয়টার দিকে প্রসূতিতে অপারেশন থিয়েটারে নেয়ার পরেও কর্তব্যরত চিকিৎসক না আসায় ক্লিনিকের নার্স ও আয়ারা সন্তান প্রসব করানোর চেষ্টা করে। রাত সাড়ে ১২ টার দিকে মেয়ে সন্তান প্রসব হওয়ার কিছুক্ষন পরেই সদ্য নবজাতক মারা যায় বলে ক্লিনিকের নার্স ও আয়ারা জানান। নবজাতকের পিতা আলাউদ্দিন সাংবাদিকদের জানান ‘আনাড়ী নার্স ও আয়াদের অগোছালো টানা হেছড়ার কারণে আমার সন্তানের মৃত্যু হয়েছে’।
‘ক্লিনিকের মালিক ডাক্তার তারিকুল আলম সাংবাদিকদের জানান নবজাতক ভূমিষ্ঠ হওয়ার পর কিছুটা জীবিত ছিল, কিন্তু আল্লার মাল আল্লাহ নিলে কারও কিছু বলার বা করার নেই । তার হায়াত ঐ পর্যন্তই’ ।
এ বিষয় চুয়াডাঙ্গা সিভিল সার্জেন খাইরুল আলম সাংবাদকিদের জানান ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার আমার কাছে অভিযোগ করলে আমি ক্লিনিকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহন করবো।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.