ঈশ্বরগঞ্জে ১০ মাস ধরে ভাতা বঞ্চিত গ্রাম পুলিশ সদস্যরা

আব্দুল আউয়াল ঈশ্বরগঞ্জ (ময়মনসিংহ)

ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে সিদ্ধান্তের ১০মাস পেরিয়ে গেলেও হাজিরা ভাতা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন গ্রাম পুলিশ সদস্যরা।
৯৮ জন গ্রাম পুলিশ সদস্য তাদের হাজিরা ভাতার টাকা না পাওয়ায় ক্ষোভ জানিয়েছেন।
জানা যায়, ২০১৬ সালে জেলা পরিষদ প্রশাসক সম্মেলনে গ্রাম পুলিশ সদস্যদের থানায় হাজিরার যাতায়াত ও দৈনিক ভাতার ব্যবস্থা করতে হবে মর্মে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। স্থানীয় সরকার (ইউনিয়ণ পরিষদ) গ্রাম পুলিশ বাহিনীর গঠন, প্রশিক্ষণ, শৃ্খংলা ও চাকুরির শর্তাবলী সম্পর্কিত নির্ধাররিত ছুটি, ভ্রমণভাতা শ্রান্তি বিনোদন ভাতা, অন্যান্য আর্থিক সুবিধাদি প্রাপ্য হবেন। এছাড়া উক্ত বিধিমালার বিধি ২১ এর উপবিধি (৪) (খ) অনুযায়ী- কর্মস্থল থানার ১০ কিলোমিটারের মধ্যে সপ্তাহে ১ বার, এর অধিক দূরত্ব হলে ২ সপ্তাহে এক বার সাপ্তাহিক প্যারেডে অংশ গ্রহণের নির্দেশনা দেওয়া হয়। ওই অবস্থায় স্থাবর সম্পত্তি হস্তান্তর করের ১ ভাগ হিসেবে প্রাপ্ত রাজস্ব থেকে গ্রাম পুলিশ সদস্যদের থানায় সপ্তাহে একদিন হাজিরার জন্য যাতায়াত ও দৈনিক ভাতা বাবদ সাকূল্যে ৩০০ টাকা করে প্রদানের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেওয়া হয়। ২০১৭ সালে ১ মার্চ সিনিয়র সহকারী সচিব ড. সৈয়দা নওশীন পর্ণিনী স্বাক্ষরিত এক পত্রে এ নির্দেশনা দেওয়া হয়। সেই নির্দেশনা অনুযায়ী তৎকালীন ময়মনসিংহের স্থানীয় সরকার উপ-পরিচালক মো. হারুন-অর-রশিদ ২৩ মার্চ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের অনুরোধ জানান। কিন্তু দীর্ঘ ১০ মাস পেরিয়ে গেলেও গ্রাম পুলিশ সদস্যদের ভাতা দেওয়ার বিষয়টি বাস্তবায়িত হওয়নি ।
গ্রাম পুলিশ সদস্য মো. মোর্শেদ আলী বলেন, তাদের ন্যায্য পাওনা হাজিরা ভাতা। কিন্তু দীর্ঘ দিন পেরিয়ে গেলেও তাদের সে ভাতার টাকা দেওয়া হচ্ছে না। গ্রাম পুলিশ সভাপতি মো. বুলবুল মিয়া বলেন, নির্দেশনা দেওয়ার ১০ মাস পেরিয়ে গেলেও তাদের ভাতার টাকা দেওয়া হচ্ছে না। আশপাশের অন্যান্য উপজেলায় গ্রাম পুলিশ সদস্যদের ভাতার টাকা দেওয়া হলেও তাদের ভাতার টাকা দেওয়া হয়নি। প্রাপ্য ভাতার টাকা না পাওয়ায় ক্ষোভ জানান তিনি।
উপজেলা কমিউনিটি পুলিশিংয়ের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা হাবিবুর রহমান হলুদ বলেন, হাজিরা ভাতা পাওয়া গ্রাম পুলিশ সদস্যদের প্রাপ্য। কিন্তু অজ্ঞাত কারণে সেই ভাতার টাকা তাদের দেওয়া হচ্ছে না।
ঈশ^রগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মিতু মরিয়ম বলেন, গ্রাম পুলিশ সদস্যরা এরিয়ার ভাতা দাবি করছেন। কিন্তু চিঠিতে সে বিষয়ে কিছু উল্লেখ নেই। সে কারণে জটিলতা তৈরি হয়েছে। গ্রাম পুলিশ সদস্যরা এরিয়ার ছাড়া ভাতা নিতে রাজী হলে তা দেওয়া সম্ভব হবে।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.