ঢাকা, বুধবার,১৭ জানুয়ারি ২০১৮

নিত্যদিন

জা ম্বি য়া র রূ প ক থা : কালুলু খরগোশের টাকার চাষ

রূপান্তর : হাসান হাফিজ

০৩ জানুয়ারি ২০১৮,বুধবার, ০০:০০


প্রিন্ট

(গত দিনের পর)
বেশ কিছুদূর যাওয়ার পর হঠাৎই থমকে দাঁড়ায় কালুলু। কাতর কণ্ঠে কাঁদো কাঁদো হয়ে বুনো শূকরকে বলে,
ইস। সর্বনাশ হয়ে গেছে। তুমি একটু দাঁড়াও রে ভাই। আমি কম্বল নিতে ভুলে গেছি। আজকের রাতটা আমাদের খোলা মাঠে কাটাতে হবে কি না। তুমি এখানে অপেক্ষা করো। আমি যাবো আর আসব।
বলে কালুলু ছুট দেয়। যাক বাবা। ওষুধটা তাহলে কাজ দিয়েছে। শূকরকে পেছনে ফেলে প্রাণপণ ছুটতে থাকে সে।
পেছনের দিকে একটুখানি যাওয়ার পর একটা কৌশল করল কালুলু। গলাটা গম্ভীর করে বলল, হুম। এই তো পাশেই একটা বুনো শুয়োর দেখছি। ধর ধর ওটাকে। ব্যাটাকে ধরে জবাই করে খাবো।
বুনো শুয়োর শুনতে পেয়েছে এ কথা। শুনে গায়ে কাঁটা দেয় তার। ভয়ে আত্মারাম খাঁচাছাড়া হওয়ার জোগাড়। বুঝতে পারল, কোনো শিকারি নিশ্চয়ই আশপাশে আছে। বাপ রে বাপ! প্রাণ বাঁচানোর জন্য সে দৌড় দিলো প্রাণপণ।
(চলবে)

 

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫