ভালুকায় ছাত্রদলের প্রতিষ্ঠার্ষিকীতে পুলিশের হামলা : ভাঙচুর আহত ৩০

ভালুকা (ময়মনসিংহ) সংবাদদাতা

ময়মনসিংহের ভালুকায় আজ সোমবার সকালে ছাত্রদলের প্রতিষ্ঠাবাষির্কীতে পুলিশের হামলায় নারীসহ অন্তত ৩০ জন আহত ও বেশ কিছু প্লাস্টিকের চেয়ার ভাংচুর করা হয়েছে। এসময় নিজের কাছে থাকা শটগানের গুলিতে রফিজ নামে পুলিশের এক কনস্টেবল আহত হয়েছেন।

দলীয় ও স্থানীয় একাধিক সূত্রে জানা যায়, সোমবার বেলা সাড়ে ১২টার দিকে ছাত্রদলের ৩৯তম প্রতিষ্ঠাবাষির্কী উদযাপনের জন্য জেলা বিএনপি নেতা আলহাজ্ব মুর্শেদ আলম গ্রুপ সমর্থিত স্থানীয় ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা তাদের অফিস থেকে আনন্দ মিছিল শেষে দলীয় অফিসের সামনে আলোচনাসভার প্রস্তুতির সময় পুলিশ তাদের উপর হামলা চালায়। পুলিশের হামলায় বিএনপি সমর্থক লাভলীসহ কমপক্ষে ৩০ জন আহত হয়েছেন। আহতদের ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালনহ স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। ওই সময় অসাবধানতাবশতঃ নিজের কাছে থাকা শর্টগানের গুলিতে রফিজ নামে পুলিশের এক কনস্টেবল আহত হয়েছেন।

নিজের হাতের শর্টগান থেকে রেড়িয়ে যাওয়া গুলি পুলিশ কনস্টেবল রফিজ উদ্দেনের পায়ে লাগে। আহত রফিজ উদ্দিনকে প্রথমে ভালুকা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্স ও পরে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

পরে পুলিশের অনুমতি সাপেক্ষ দলীয় অফিসে প্রতিষ্ঠাবাষির্কীর কেক কাটে ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা। এ সময় জেলা বিএনপি যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আলহাজ¦ মোহাম্মদ মোর্শেদ আলম, উপজেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক সালাউদ্দিন আহাম্মেদ, উপজেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মজিবুর রহমান মজু, দপ্তর সম্পাদক গোলজার হোসেন, উপজেলা যুবদলের সাবেক আহবায়ক আবুল কালাম আজাদ, উপজেলা শ্রমিকদলের যুগ্ম আবায়ক জাহাঙ্গীর মো: আদেল, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক দল আহবায়ক রুহুল আমীন রুহুল, ছাত্রনেতা কায়সার আহামেদ কাজল, নুরুল হক মন্ডল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

ছাত্রদল নেতা কায়সার আহামেদ কাজল জানান, দলীয় কার্যালয়ের সামনে ছাত্রদলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আলোচনা সভার প্রস্তুতি নেয়ার সময় পুলিশ বিনা উস্কানিতে তাদের উপর হামলা চালায়। ওই সময় তারা বেশ কিছু চেয়ার ভাংচুর করে। হামলায় কমপক্ষে ৩০ জন নেতা-কর্মী আহত হন। ওই সময় পুলিশ কমপক্ষে আটজনকে আটক করে নিয়ে যায়।

ভালুকা মডেল থানার ইনচার্জ (তদন্ত) হযরত আলী জানান, অনুমতি ছাড়া অনুষ্ঠান করায় এবং ছাত্রদলের দুই গ্রুপের মাঝে গোলযোগের আশঙ্কায় পুলিশ তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। অসাবধানতায় নিজের বন্দুক থেকে বেড়িয়ে যাওয়া গুলি পায়ে লেগে রফিজ নামে এক পুলিশ সদস্য আহত হন। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.