ঢাকা, মঙ্গলবার,১৬ জানুয়ারি ২০১৮

বিবিধ

নাটোরে হকি উৎসব

ক্রীড়া প্রতিবেদক

২৯ ডিসেম্বর ২০১৭,শুক্রবার, ২২:০০


প্রিন্ট

ঢাকার হকি মুখ থুবড়ে পড়েছে। নির্দিষ্ট কোনো কারণ ছাড়া কেউ আর ফেডারেশনমুখী হন না। ক্লাবগুলোর অনীহায় খেলোয়াড়েরা আরো আগেই মুখ ফিরিয়ে নিয়েছেন। এমন বিমূঢ় পরিস্থিতিতে খেলোয়াড়দের মধ্যে কিছুটা উন্মাদনা ফিরিয়ে এনেছে নাটোর জেলা ক্রীড়া সংস্থা। প্রথমবারের মতো আয়োজন করেছে বিজয় দিবস হকি টুর্নামেন্ট। স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ করেছে নাটোর ও রাজশাহীর আটটি দল। জাতীয় দল থেকে শুরু করে বিভিন্ন জেলার কৃতী খেলোয়াড়েরাও উৎসবের আমেজে অংশ নিয়েছেন এই টুর্নামেন্টে।

রাসেল মাহমুদ জিমি, কামরুজ্জামান রানা, পুস্কর ক্ষিসা মিমো, ইমরান হাসান পিন্টু, মামুনুর রহমান চয়ন ছাড়া প্রায় সবাই অংশ নিয়েছেন এই টুর্নামেন্টে। ফাইনালে ওঠা নাটোরের পক্ষে খেলছেন গোলরক্ষক জাহিদ, সারোয়ার, আশরাফুল, রকি, কৌশিকের মতো খেলোয়াড়েরা। আরেক ফাইনালিস্ট সিপাইপাড়ার পক্ষে খেলছেন শিটুল, নিপ্পন, তাহের, কৃষ্ণা, রাব্বি, মাহবুবের মতো মাঠ কাঁপানো খেলোয়াড়েরা। আম্পায়ার হিসেবে রয়েছেন ইমরান হায়দার, সামাদ মামুন ও সেলিম লাকি।
গ্রুপ পর্ব পেরিয়ে ফাইনালে জায়গা করে নিয়েছে নাটোর হকি দল ও রাজশাহীর সিপাইপাড়া স্পোর্টিং ক্লাব। প্রথম সেমিফাইনালে নাটোর ২-০ গোলে পঞ্চগড় হকি ক্লিনিককে এবং দ্বিতীয় সেমিতে সিপাইপাড়া এসসি ৬-০ গোলে রাজশাহী উপশহর স্পোর্টিং ক্লাবকে হারিয়ে ফাইনাল নিশ্চিত করে। কাল শিরোপার জন্য লড়বে উভয় দল।

এমন একটি আয়োজনকে সফল করতে কাজ করছেন নোটোর জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক ও বাহফে ভাইস প্রেসিডেন্ট মোস্তাক আহমেদ মুকুল, রাজশাহীর তৌফিকুর রহমান রতন ও নাটোর দলের স্থানীয় কোচ ও জাতীয় দলের সাবেক খেলোয়াড় জাহিদুল ইসলাম রতন। ঘাসের মাঠটিকে প্রতিযোগিতার জন্য উপযোগী করা হয়েছে। টার্ফের খেলোয়াড়েরাও অভিভূত এমন একটি মাঠ পেয়ে। যুব গেমসের ভেনুর জন্যও যেটি বেছে নেয়া হয়েছে। প্রতিদিন অংশ নেয়া দলগুলোকে ১৫ হাজার টাকা করে দেয়া হচ্ছে। প্রতি ম্যাচের সেরা খেলোয়াড়কে দেয়া হচ্ছে ৫ হাজার টাকা।
জাতীয় দলের সাবেক গোলরক্ষক জাহিদ জানান, ‘এ পর্যন্ত স্থানীয় যত টুর্নামেন্ট খেলেছি তন্মধ্যে এটা বেস্ট। বাহফে যেখানে বিজয় দিবস করতে পারেনি সেখানে সাড়া ফেলেছে নাটোর। এখন পর্যন্ত এটাই নাটোরের প্রথম হকি টুর্নামেন্ট।’ জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক মামুনুর রহমান চয়ন জানান, ‘ফরিদপুর, রাজশাহীকে সাধারণত সবাই হকির জেলা বলেই জানেন অনেকেই। তারাও কোনো টুর্নামেন্টের আয়োজন করতে পারেনি। সেখানে নাটোর এমন একটি টুর্নামেন্টের আয়োজন করেছে। সেজন্য উদ্যোক্তা ও আয়োজকদের ধন্যবাদ।’

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫