ওবামা দশম বারের মতো এবং হিলারি ক্লিনটন টানা ১৬ বারের মতো শীর্ষ খ্যাতিমানের নামের তালিকায় ওঠে আসলেন
ওবামা দশম বারের মতো এবং হিলারি ক্লিনটন টানা ১৬ বারের মতো শীর্ষ খ্যাতিমানের নামের তালিকায় ওঠে আসলেন

সবচেয়ে খ্যাতিমান পুরুষ ওবামা, নারী হিলারি

এএফপি

যুক্তরাষ্ট্রে পুরুষদের মধ্যে দেশটির সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা এবং নারীদের মধ্যে সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিনটন অধিক খ্যাতিমান নাগরিক। বুধবার এক জরিপে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

গ্যালাপের বার্ষিক জরিপে ওবামা দশম বারের মতো এবং হিলারি ক্লিনটন টানা ১৬ বারের মতো শীর্ষ খ্যাতিমানের নামের তালিকায় ওঠে আসলেন।

হিলারি গত বছরের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে পরাজিত হন।

এ জরিপে অংশ নেয়া ১৭ শতাংশ মার্কিন নাগরিক সর্বাধিক খ্যাতিমান ব্যক্তি হিসেবে ওবামাকে সমর্থন করেন। গত বছর সমর্থন জানানোর এ হার ছিল ২২ শতাংশ।

এক্ষেত্রে ১৪ শতাংশ নাগরিকের সমর্থন পেয়ে ট্রাম্প দ্বিতীয়।

পোপ ফ্রান্সিস তিন শতাংশ লোকের সমর্থন পেয়ে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছেন।

জরিপে অংশ নেয়া নয় শতাংশ মার্কিন নাগরিক অধিক খ্যাতিমান নারী হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিনটনকে সমর্থন করেন।

এক্ষেত্রে সাত শতাংশ নাগরিকের সমর্থন পেয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছেন দেশটির সাবেক ফার্স্ট লেডি মিশেল ওবামা এবং চার শতাংশ লোকের সমর্থন পেয়ে এর পরের অবস্থানে রয়েছেন টক শো উপস্থাপক ওপরাহ উইনফ্রে।

গ্যালাপ জানায়, এ জরিপে এক হাজার ৪৯ জন অংশ নেন এবং ৪ থেকে ১১ ডিসেম্বর পর্যন্ত জরিপটি চালানো হয়।

সামাজিক মাধ্যমের দায়িত্বহীন ব্যবহারে সতর্কবার্তা ওবামার

দায়িত্বজ্ঞানহীনভাবে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের ব্যবহার নিয়ে সতর্ক করেছেন সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। গত জানুয়ারিতে ক্ষমতা থেকে বিদায় নেয়ার পর এক দুর্লভ সাক্ষাৎকারে তিনি এ সতর্কবার্তা উচ্চারণ করেন।

তিনি হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছেন, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের এ ধরনের ব্যবহার জনগণের জটিল সমস্যাগুলোকে বিকৃত করে এবং ভুল তথ্য ছড়ায়।

ওবামার উত্তরসূরি বর্তমান মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারের ব্যাপক ব্যবহারকারী।

ওবামা অবশ্য সাক্ষাৎকারে ট্রাম্পের নাম উচ্চারণ করেননি।

বিবিসি রেডিও ফোরের জন্য ওবামার সাক্ষাৎকারটি নিয়েছেন ব্রিটিশ রাজপরিবারের সদস্য প্রিন্স হ্যারি।

সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, যারা ক্ষমতায় রয়েছেন তাদের কোনো বার্তা পোস্ট করার সময় সতর্ক হতে হবে।- বিবিসি

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.