ঢাকা, বুধবার,১৭ জানুয়ারি ২০১৮

সাতরঙ

সাজকথা ২০১৭ ফিরে দেখা ফেরদৌসী মুন

ফাহমিদা জাবীন

২৬ ডিসেম্বর ২০১৭,মঙ্গলবার, ০০:০০


প্রিন্ট

প্রতিটি বছরের মতো সাজের ক্ষেত্রেও ২০১৭ সালে ছিল নিজস্ব ট্রেন্ড। এ বছরের সাজের পর্যালোচনা করেছেন মুন হেয়ার অ্যান্ড বিউটি কেয়ারের পরিচালক রূপবিশেষজ্ঞ ফেরদৌসী মুন

রূপচর্চার একটি বিশেষ উপকরণ হলো কাজল। সময়ের সাথে সাথে চোখের সাজে কাজলের ব্যবহারে এসেছে ভিন্নতা। কালো কাজলের পাশাপাশি নীল ও ব্রাউন, সবুজ রঙের কাজলের চল বেশ ছিল। কাপড়ের রঙের সাথে মিল রেখে আইশ্যাডো পরায় পরিবর্তন লক্ষ করা গেছে ফ্যাশনসচেতন তরুণীদের মধ্যে। রাতের অনুষ্ঠানের সাজে কালো রঙের কাজলের ওপর কালো রঙের আইশ্যাডো, কালোতে কিছুটা নীলচে ভাব আনতে নীল রঙের আইশ্যাডো ব্যবহার হয়েছে। চোখের স্মোকি সাজ বেশ জনপ্রিয় সব বয়সী মেয়েদের মধ্যে। মাশকারা ব্যবহার হয়েছে বাদামি বা নীলচে রঙের। আইল্যাশ কার্ল করে চোখের আকার বেশ খানিকটা বড় দেখায় এটিও পার্টি সাজের একটি অংশ ছিল।
ভারী সাজে ব্লাশনের কালার গাঢ় আর হালকা সাজে ব্লাশনের কালারও থাকে হালকা। হালকা গোলাপি, পিচ রঙে লাল, খয়েরি মেজেন্টা রঙের সংমিশ্রণ দেখা গেছে। গরমের কারণে লিকুইড ফাউন্ডেশনের পাশাপাশি ফেস পাউডার বা ডুয়েল ফিনিশড ফাউন্ডেশন ব্যবহার হয়েছে মেকআপে।
কাপড়ের রঙের সাথে মিল রেখে লিপস্টিক দেয়ার স্টাইলে কিছুটা পরিবর্তন এসেছে। ম্যাট লিপস্টিকের চলটা বেশি থাকলেও লিপস্টিকে একটু গ্লসি ভাবটাই বেশি জনপ্রিয় ছিল। ম্যাট লিপস্টিকের ওপর একটু গ্লস দিয়ে ফ্যাশনেবল লুক আনা হয়েছে। রাতের সাজে গাঢ় রঙের লিপস্টিক আর দিনের বেলার কোনো অনুষ্ঠানে কিংবা বন্ধুদের আড্ডায়, অফিসে, কর্মস্থলে ন্যাচারাল কালার ব্যবহার ফ্যাশন ছিল।
কার্লি হেয়ার, চুল স্টেট করা, পার্ম এবং ভলিয়ম তৈরি ও বিভিন্ন ধরনের বেণী এই সময়ের হেয়ার ফ্যাশন ছিল। ছোট্ট চুলে বা মাঝারি চুলে কার্লি লুক যেমন দেখা গেছে, তেমনি সামনের অংশে পাফ করে চুুল পেছনে স্টেট করে কিংবা কার্ল করেও পার্টি লুক করতে দেখা গেছে ফ্যাশনসচেতন তরুণীদের মধ্যে। চুলের নানা ডিজাইনের গয়না পরার প্রচলন বেশ জনপ্রিয় নারীদের মধ্যে। হেয়ার কালারের ব্যবহার বেশ লক্ষণীয় ছিল। ডার্ক ব্রাউন, লাইট ব্রাউন, কপার ইত্যাদি কালারের সাথে যোগ হয়েছে পিচ, রেডিস, গ্রিন, ব্লু, মেজেণ্টা।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫