ঢাকা, শুক্রবার,১৯ জানুয়ারি ২০১৮

আফ্রিকা

নারীদের বিমানে উঠতে বাধা, এমিরেটসকে তিউনিসিয়ার কড়া জবাব!

নয়া দিগন্ত অনলাইন

২৫ ডিসেম্বর ২০১৭,সোমবার, ১৫:৩৬ | আপডেট: ২৫ ডিসেম্বর ২০১৭,সোমবার, ১৫:৪৩


প্রিন্ট
তিউনিসিয়ার কিছু নারীকে বিমানে উঠতে না দেয়ার বিষয়টি নিয়ে দেশটির ভেতরে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছিল

তিউনিসিয়ার কিছু নারীকে বিমানে উঠতে না দেয়ার বিষয়টি নিয়ে দেশটির ভেতরে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছিল

তিউনিসিয়ার কিছু নারীকে বিমানে উঠতে না দেয়ার কারণে দেশটির কর্তৃপক্ষ দুবাই-ভিত্তিক এয়ারলাইন্স এমিরেটসকে তিউনিসে অবতরণ করতে দেয়নি।

তিউনিসিয়ার কিছু নারীকে বিমানে উঠতে না দেয়ার বিষয়টি নিয়ে দেশটির ভেতরে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছিল। মানবাধিকার সংস্থাগুলো বিষয়টিকে 'বৈষম্যমূলক' হিসেবে আখ্যা দিয়েছে।

তিউনিসিয়ার ট্রান্সপোর্ট মন্ত্রণালয় বলছে, এমিরেটস এয়ারলাইন্স যতক্ষণ পর্যন্ত আন্তর্জাতিক আইন মেনে ফ্লাইট পরিচালনা করবে না ততক্ষণ পর্যন্ত তাদের উপর এ নিষেধাজ্ঞা থাকবে।

তবে সংযুক্ত আরব আমিরাতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলছে নিরাপত্তা সংক্রান্ত তথ্য পেতে দেরি হওয়ায় এ পরিস্থিতির তৈরি হয়েছে।

টুইটারে এক বার্তায় তিনি বলেন, "তিউনিসিয়ার নারীদের আমরা অনেক মূল্যায়ন এবং সম্মান করি।"

তিউনিসিয়ার স্থানীয় গণমাধ্যম বলছে, দুবাই-গামী তিউনিসিয়ার নারীদের এমিরেটসের ফ্লাইটে উঠতে দেয়া হয়নি। এ ঘটনা কয়েকদিন ধরে ঘটেছে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে কয়েকজন নারী জানিয়েছেন, তাদের যাত্রা বিলম্ব হয়েছে এবং তাদের ভিসা আরো পরীক্ষা-নিরীক্ষার প্রয়োজন আছে বলে জানানো হয়েছে।

২০১১ সালে তিউনিসিয়ার বিপ্লবের পর সংযুক্ত আরব আমিরাতের সাথে দেশটি সম্পর্ক উন্নয়নের চেষ্টা করছে।

জেরুসালেম ইস্যুতে মার্কিন পণ্য বয়কটের ডাক তিউনিসিয়ার

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জেরুসালেমকে ইসরাইলের রাজধানী স্বীকৃতি দেয়ার প্রতিবাদে আরব এবং মুসলিমদের আমেরিকান পণ্য বয়কটের আহ্বান জানিয়েছে তিউনিসিয়ার পপুলার ফ্রন্ট কোয়ালিশনের মুখপাত্র হাম্মা হাম্মামি।

তিউনিসিয়ায় ফিলিস্তিনিদের পক্ষে আয়োজিত একটি সমাবেশে হাম্মামি বলেন, ‘ফিলিস্তিনিদের প্রতি সমর্থনের স্বার্থে স্বাভাবিকভাবেই আমেরিকান পণ্য বয়কট করতে হবে।’ তিনি বলেন, ‘মার্কিন প্রশাসন যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে তা অবৈধ। এর প্রতিবাদে তিউনিসিয়াসহ আরব দেশগুলোতে মার্কিন দূতাবাস বন্ধ করে দিয়ে কূটনীতিকদের বহিষ্কার করা উচিত।’

পপুলার ফ্রন্টের নেতা ও পপুলার কারেন্ট পার্টির সাধারণ সম্পাদক জৌহার হামিদি বলেছেন, এই সমাবেশটি ফিলিস্তিনিদের সমর্থন করার জন্য যে সংগ্রাম তারই একটি প্রতিফলন। হামিদি ফিলিস্তিনি সমস্যা সমাধানের জন্য এই আন্দোলনকে সমর্থন করতে বৈচিত্র্যের মাধ্যমে বিস্তৃতি বাড়ানোর প্রতি জোর দিয়েছেন। তিনি তিউনিসিয়ান পার্লামেন্টের প্রতিনিধিত্বকারী রাজনৈতিক দলগুলোর প্রতি একটি বিল পাসের মাধ্যমে ইসরাইলের সিদ্ধান্তকে একটি অপরাধ হিসেবে গণ্য করার আহ্বান জানিয়েছেন। - মিডলইস্ট মনিটর (১৫ ডিসেম্বর প্রকাশিত সংবাদ)

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫