ঢাকা, বুধবার,১৭ জানুয়ারি ২০১৮

নির্বাচন

রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচন-২০১৭

ভোট নিয়ে শঙ্কা থাকলেও বর্জন করবো না প্রতিবাদ করবো : বাবলা

সরকার মাজহারুল মান্নান, রংপুর অফিস

২১ ডিসেম্বর ২০১৭,বৃহস্পতিবার, ১২:৪৩ | আপডেট: ২১ ডিসেম্বর ২০১৭,বৃহস্পতিবার, ১৩:১৮


প্রিন্ট

বিএনপির প্রার্থী ধানের শীষ প্রতীকের কাওছার জামান বাবলা বলেছেন, লেবেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরি না হওয়ায় আগেও বলেছি এখনও বলছি, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ ভোট নিয়ে আমাদের শঙ্কা আছে। তবে আমরা ভোট বর্জন করবো না। মাঠে থেকে ভোট ডাকাতির চিত্র দেশবাসিকে দেখিয়ে এর প্রতিবাদ জানাবো।

তিনি সকাল সোয়া ৯টায় ২৯নং ওয়ার্ডের দেওয়ানটুলি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট প্রদান শেষে সাংবাদিকদের একথা বলেন। এসময় তার সাথে ছিলেন নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সদস্য সচিব ও মহানগর বিএনপির সভাপতি শহিদুল ইসলাম মিজু, জেলা সভাপতি সাইফুল ইসলাম, সেক্রেটারি রইচ আহমেদ প্রমুখ।

বাবলা বলেন, ইলেকশন ইঞ্জিনিয়ারিং করা না হলে আমার বিজয় কেউ ঠেকাতে পারবে না ইনশাআল্লাহ। ধানের শীষের এজেন্টদের বিভিন্নভাবে ভয়ভীতি দেখানো হচ্ছে। তবুও ভোটাররা নিরব ভোট বিপ্লবের মাধ্যমে ধানের শীষকে বিজয় করবে। তবে সকাল সোয়া ৯টা পর্যন্ত ভোট সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হয়েছে বলে জানান তিনি।

উল্লেখ্য, ১৬৪ নম্বর দেওয়ানটুলি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রটিতে ভোটার রয়েছেন ১ হাজার ৮৩০ জন।

কেন্দ্র থেকে এজেন্ট বের করে দেয়ার অভিযোগ বিএনপির প্রধান এজেন্টের
১৫ নং ওয়ার্ডের একটি কেন্দ্রে বিএনপির এজেন্টদের বের করে দেয়ার অভিযোগ করেছেন প্রধান নির্বাচনী এজেন্ট শহিদুল ইসলাম মিজু।

তিনি দুপুর সাড়ে ১২টায় বলেন, ১৫নং ওয়ার্ডের ফতেহপুর ভুরারঘাট কেন্দ্র থেকে তাদের এজেন্টদের বের করে দেয়া হয। পরে আমরা সেখানে গিয়ে প্রিজাইটিং অফিসারকে বলে আবারও এজেন্ট রিপলেস করি।

তিনি বলেন, এভাবে বিভিন্ন কেন্দ্রে আমাদের এজেন্টদের বের করে দেয়া হচ্ছে। এর মাধ্যমে প্রমাণিত হচ্ছে প্রশাসন কাউকে বিজয়ী করার জন্য বিএনপির এজেন্টদের বের করে দেয়া হলেও ব্যবস্থা নিচ্ছে না। বিষয়টি দুঃখজনক।

তিনি বলেন, যেভাবে আমাদের এজেন্ট ও ভোটারদের ভয়ভীতি দেখানো হচ্ছে। তাতে মনে হচ্ছে, ভোট সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হবে না।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫